নতুন খবরভারতবর্ষ

১৯৮৪-র শিখ বিরোধী দাঙ্গার জন্য কংগ্রেসের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নরসিংহ রাও’কে দায়ী করলেন মনমোহন সিং!

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং (manmohan singh) ১৯৮৪ সালের শিখ বিরোধী দাঙ্গা (Anti Sikh Riots) নিয়ে বড় বয়ান দিলেন। উনি বলেন, যদি তৎকালীন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী পিভি নরসিংহ রাও (narasimha rao) যদি ইন্দ্র কুমার গুজরালের (ik gujral) কথায় কান দিত, তাহলে ১৯৮৪ সালে হওয়া শিখ বিরোধী দাঙ্গা আটকানো যেত। মনমোহন সিং এই কথা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী আই কে গুজরাল এর জন্ম জয়ন্তীতে আয়জিত একটি অনুষ্ঠানে বলেন।

I. K. Gujral

উনি এই বলেন, গুজরাল নরসিংহ রাওকে এই ব্যাপারে পরামর্শ দিয়েছিলেন। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং বলেন, ‘দিল্লীতে যখন ১৯৮৪ সালে শিখ বিরোধী দাঙ্গা হচ্ছিল, গুজরাল সেই সময় তৎকালীন নরসিংহ রাওয়ের কাছে গেছিলেন। উনি রাওকে বলেছিলেন যে, পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে, সরকারকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেনা ডাকা উচিৎ। যদি রাও সেদিন গুজরালের পরামর্শ মেনে জরুরি পদক্ষেপ নিত, তাহলে হয়ত ১৯৮৪ সালে নরসংহার আটকানো যেত।”

আপনাদের জানিয়ে রাখি, ১৯৮৪ সালে প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে ওনার দুই সুরক্ষা কর্মী গুলি করে হত্যা করে দেয়। এরপরই শুধু দিল্লী না, গোটা দেশ জুড়ে শিখদের বিরুদ্ধে নরসংহার শুরু হয়ে যায়। শুধুমাত্র দিল্লীতে ২ হাজার ৭৩৩ জনের জীবন গেছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয় দ্বারা নিযুক্ত বিচারক জি পি মাথুর সমিতির সুপারিশের পর ১২ই ফেব্রুয়ারি ২০১৫ সালে এসআইটি গথন করা হয়েছিল। তিন সদস্যের এসআইটি এখনো পর্যন্ত শিখ বিরোধী দাঙ্গায় ৬৫০ মামলার মধ্যে ৮০ টি মামলাকে আবারও রি ওপেন করেছে।

আরেকদিকে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দ্র কুমার গুজরাল ৯২ বছর বয়সে ৩০ নভেম্বর ২০১২ সালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। উনি ১৯৯৭ এর এপ্রিল মাস থেকে ১৯৯৮ এর মার্চ পর্যন্ত ভারতের ১২ তম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। গুজরালের জন্ম জয়ন্তীতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এস. জয়শঙ্কর আর প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কর্ণ সিং ওনাকে স্মরণ করেন।

Related Articles

Back to top button