নতুন খবরভারতবর্ষ

শাহীনবাগে খোলাখুলি চলছে দেশদ্রোহী কর্মকান্ড! দেখা মিলছে আসাম বিহীন ভারতবর্ষের মানচিত্র,

CAA ও NRC এর বিরুদ্ধে যে প্রদর্শন শুরু হয়েছিল তা ধীরে ধীরে দেশবিরোধী রূপ নিচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে। অনেকে কট্টরপন্থী আজাদী শ্লোগান তুলে দেশবিরোধী গতিবিধিতেও লিপ্ত হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বেশকিছু জন হিন্দুদের থেকে আজাদী, হিন্দুত্ব থেকে আজাদীর মতো শ্লোগানও তুলেছে। প্রসঙ্গত জানিয়ে দি,CAA ও NRC এর বিরোধের নামে বহু স্থানে দেশবিরোধী কর্মকান্ড চলছে। শাহীন বাগে ৫০০ টাকার পরিবর্তে মুসলিম মহিলাদের একত্র করে PFI ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। CAA এর বিরোধিতা করতে গিয়ে সারজিল ইমাম যে বিবৃতি দিয়েছিল তা এখন কারোর থেকে লুকিয়ে নেই। JNU ছাত্র সারজিল ইমাম ৫ লক্ষ মুসলিমকে একত্র হওয়ার ডাক দিয়েছিল আসামকে সহ উত্তরপূর্বকে ভারত থেকে আলাদা করার জন্য।

এখন শাহীনবাগ থেকে যে ছবি সামনে আছে তা অত্যন্ত চাঞ্চল্যকর। আসলে শাহীনবাগে আসাম বিহীন মাপের দেখা মিলছে। শাহীনবাগের যে স্থানে CAA ও NRC নিয়ে প্রদর্শন চলছে, ওই স্থানেই দেখা মিলছে উত্তরপূর্ব ভারত বিহীন ভারতবর্ষে মানচিত্র। এই ছবি প্রথমদিকে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সামনে এসেছিল। কিন্তু সেই সময় অনেকে এটাকে ভুয়ো ছবি বলে দাবি করে। তৎপর সাংবাদিকরা শাহীনবাগে গেলে বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যায়। শাহীনবাগের যে স্থানে আন্দোলন চলছে সেখানে গান্ধী, ভগত সিং এর ছবির পাশাপশি খণ্ডিত ভারতের ছবির দেখা মেলে।

শাহীনবাগ এলাকায় সারজিল ইমাম নামের কট্টরপন্থী মুসলিমদের ভারত ভাঙার জন্য উস্কানি দিয়েছিল। JNU ছাত্র সারজিল ইমাম বলেছিল, ৫ লক্ষ মুসলিম এক হলেই উত্তরপূর্ব ভারতকে আমরা কেটে আলাদা করে দিতে পারবো। সারজিল ইমামের পরিকল্পনা ছিল শিলিগুড়ি করিডোরে বড়ো সংখ্যায় মুসলিম জড়ো করে ব্লক করে দেওয়া। যদিও সোশ্যাল মিডিয়ায় সারজিল ইমামের বক্তব্য ভাইরাল হতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

 

কিন্তু সারজিল ইমামকে গ্রেফতার করা হলেও এখনও যে শাহীনবাগে আন্দোলনের নামে দেশবিরোধী কার্যকলাপ চলছে তার আশঙ্কা মিলছে। অনেকে শাহীনবাগকে PFI এর হেডকোয়ার্টার বলেও গণ্য করেছে। কারণ ভারতকে ইসলামিক রাষ্ট্র করা, টুকরো টুকরো করার জন্য শাহীনবাগে PFI এর ফান্ডিং রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Back to top button
Close