Press "Enter" to skip to content

আমার দুই নাতিকেও পাঠাব সেনায়! চোখের জলে ছেলেকে বিদায় জানিয়ে বললেন কুন্দন কুমারের বাবা

শেয়ার করুন -

পাটনাঃ লাদাখে (Ladakh) চীনের হামলায় শহীদ হওয়া বিহারের সিপাই কুন্দন কুমার-এর (Kundan Kumar) বাবার ভিডিও (VIdeo) সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল (Viral) হয়। পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীনের সেনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রাণ হারিয়েছেন বিহারের কুন্দন কুমার। শহীদ কুন্দন কুমারের বাড়ি বিহারের সহর্সা জেলার বিহরা থানা এলাকার আরন গ্রামে। শহীদ সিপাই কুন্দন কুমারের বাবার কাছে যখন ওনার ছেলেকে নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হয়, তখন তিনি বলেন, ‘আমি আমার ছেলের শহীদ হওয়াতে গর্ব করি। আমার ছেলে দেশের জন্য বলিদান দিয়েছে। আমার দুটি নাতি আছে, ওদেরও সেনাতে পাঠাব আমি।”

আরেকদিকে এই সংঘর্ষে বিহারের ১৬ রেজিমেন্টের কমান্ডিং অফিসার কর্নেল সন্তোষ বাবু (Santosh Babu) শহীদ হন। সন্তোষ বাবু বিগত দেড় বছর ধরে চীন সীমান্তে কর্তব্যরত। কর্নেল সন্তোষ এর মা মঞ্জুলা দেবী বলেন, মঙ্গলবার সেনার তরফ থেকে ওনাকে এই খবর দেওয়া হয়েছিল।

ছেলে শহীদ হওয়ার পর মা মঞ্জুলা দেবী একসময় দুঃখী, আবার একসময় খুশিও। নিজের চোখের জল মুছতে মুছতে মঞ্জুলা দেবী বলেন, ‘আমি গর্ব বোধ করি যে, আমাদের ছেলে দেশের জন্য কুরবান হয়েছে, কিন্তু এক মা হিসেবে আমার অনেক দুঃখও আছে। ও আমার একমাত্র ছেলে ছিল” কর্নেল সন্তোষের পরিবার দিল্লীতে থাকেন। ওনার পরিবারে স্ত্রী আর দুই বাচ্চা আছে।

উল্লেখ্য, মে মাসের শুরুতে চীনের সেনা আক্রমণাত্বক রুপ ধারণ করা শুরু করে। লাদাখের চার জায়গায় পিপলস লিবারেশন আর্মির জওয়ানরা অনুপ্রবেশ চালায়। চীনের সেনা প্রচুর পরিমাণে কামান আর আর্মড বাহন নিয়ে বাস্তবিক নিয়ন্ত্রণ রেখার পাশে জড় হয়। গালওয়ান উপত্যকা আর প্যাংইয়াং লেকের দুটি মুখ্য জায়গায় দুই দেশের সেনা সামনা-সামনি চলে আসে।