নতুন খবরভারতবর্ষ

রাম-রাবণ, কৃষ্ণ-কংসের যুদ্ধ হয়েছিল! মুসলিমরা কোনদিনও এসব করেনিঃ মৌলানা তৌকির রাজা

বেরেলিঃ হরিদ্বারের ধর্ম সংসদে ২০ কোটি মুসলিমদের গণহত্যার প্রতিক্রিয়ায় ইত্তেহাদ-ই-মিল্লাত কাউন্সিল (IMC)-র প্রধান মৌলানা তৌকির রাজা সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের বেরেলিতে মুসলিম ধর্ম সংসদে গৃহীত সিদ্ধান্তের পরে ২০ হাজার মুসলমানের সাথে শহীদ হওয়ার ঘোষণা করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার ইসলামিয়া ময়দানে হাজার হাজার মুসলিমদের একত্রিত করেন তিনি।

এ সময় মৌলানা তৌকির তাঁর যুক্তিতে হিন্দুদের প্রশ্ন করে বলেন, আমাদের লড়াই কবে হয়েছে তা আপনারাই বলুন। শ্রী রাম ও শ্রী কৃষ্ণের সময়ের কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, রাম রাবণের সঙ্গে যুদ্ধ করেছিলেন, শ্রী কৃষ্ণ কংসের সাথে যুদ্ধ করেছিলেন, তখন মুসলমান কোথায় ছিল? এখন আমাদের লড়াই মানে কী। আমাদের কেন শত্রু বলা হয়? কখন আমরা নিজেদের মধ্যে মারামারি করেছি?

উল্লেখ্য, গত বছর ডিসেম্বর মাসে হরিদ্বারের ধর্ম সংসদে মুসলিমদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ আর ঘৃণা উগরে দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনার কয়েকটি ভিডিও ভাইরাল হয়, যা দেখে চারিদিকে নিন্দার ঝড় বয়ে গিয়েছিল। পাশাপাশি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ারও দাবি ওঠে। এই ধর্ম সংসদের আয়োজন ১৭ থেকে ১৯ ডিসেম্বর হয়েছিল। যেখানে অনেক ধার্মিক নেতা ছাড়াও বিজেপির নেতা অশ্বিনী উপাধ্যায়ও উপস্থিত ছিলেন।

ধর্ম সংসদে সাধু সন্ন্যাসীদের সেই উস্কানিমূলক ভাষণে বলা হয়েছিল যে, দেশে যেভাবে মুসলিমদের জনসংখ্যা বাড়ছে, এমন চলতে থাকলে ২০২৯ সালে দেশের প্রধানমন্ত্রী কোনও মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ হবেন। পাশাপাশি হিন্দুদের সতর্ক করে বলা হয় যে, আগেভাগেই এর প্রস্তুতি নিতে হবে। মোবাইল কেনার আগে হিন্দুদের আগ্নেয়াস্ত্র কেনার ডাক দিয়েছিলেন সাধু সন্ন্যাসীরা। ভারতকে হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ বানাতে মুসলিম গণহত্যারও ডাক দিয়েছিলেন সাধুরা।

 

Related Articles

Back to top button