Press "Enter" to skip to content

ভিডিওঃ লাদাখ সীমান্তে নাইট অপারেশন চালাল ভারতীয় বায়ুসেনা, একের পর এক আকাশে উড়ল লড়াকু বিমান

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ ভারত (India) আর চীনের (China) মধ্যে পূর্ব লাদাখের (Ladakh) গালওয়ান উপত্যকায় জারি উত্তেজনা এখন কম হচ্ছে। সোমবার চীনের সেনা প্রায় দুই কিমি পিছিয়ে গেছে। আরেকদিকে, সোমবার রাতে ভারত-চীন সীমান্তের পাশে ভারতীয় বায়ুসেনার অ্যাপাচে হেলিকপ্টার ফরোয়ার্ড এয়ারবেসে নাইট অপারেশন চালায়। রাতের অন্ধকারে অ্যাপাচে, চিনুক, মিগ-২৯ সমেত বায়ুসেনার অনেক বিমান আকাশে উড়ে যায়। বায়ুসেনা চীনের উপরে কড়া নজর লাগিয়ে বসে আছে।

ভারত চীন সীমান্তের ফরোয়ার্ড বেসে অ্যাপাচে হেলিকপ্টার (Apache Helicopter) নজরদারির জন্য নাইট অপারেশন চালায়। বায়ুসেনা লাগাতার সীমান্তে অভ্যাস করছে আর যেকোন পরিস্থিতির মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত। শুধু অ্যাপাচেই না, চিনুক হেলিকপ্টারও নাইট অপারেশন চালায়। মিগ-২৯ সমেত অনেক লড়াকু বিমানই এর আগে লেহ এর আকাশে চীনের বুকে কাঁপন ধরাতে অভ্যাস করে।

ভারত-চীন সীমান্তের পাশে ফরোয়ার্ড এয়ারবসে বরিষ্ঠ লড়াকু পাইলট গ্রুপের ক্যাপ্টেন এ রাঠি বলেন, ‘রাতের অপারেশনগুলিতে অবাক হওয়ার অন্তর্নিহিত উপাদান রয়েছে। বিমানবাহিনী আধুনিক প্ল্যাটফর্ম এবং অনুপ্রাণিত কর্মীদের সহায়তায় যেকোন পরিবেশে পুরো কাজ পরিচালনার জন্য পুরোপুরি প্রশিক্ষিত এবং সজ্জিত।”

জানিয়ে দিই, গত বছর ভারতীয় বায়ুসেনা আটটি অ্যাপাচে হেলিকপ্টারকে নিযুক্ত করে। এরপর ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তি অনেক গুন বেড়ে যায়। অ্যাপাচে হেলিকপ্টারের নির্মাণ আমেরিকার কোম্পানি বোয়িং করে। এর মারক ক্ষমতা অনেক বেশি। এর ডিজাইন এমন যে, কোন র‍্যাডারও এই বিমানকে ধরতে পারে না। অ্যাপাচে প্রায় ২৮০ কিমি প্রতি ঘণ্টা গতিতে আকাশে উড়তে পারে। তিনঘণ্টা একভাবে এই হেলিকপ্টার আকাশে উড়তে পারে। এছাড়াও ১৬ টি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল ছাড়ার ক্ষমতা আছে অ্যাপাচেতে।