নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

আরও এক তৃণমূলের মন্ত্রীর দল ছাড়ছেন বলে পোস্টার পড়ল এলাকায়, শুরু হল জল্পনা

মঙ্গলকোটঃ ‘অধীর চৌধুরী আর সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরীকে একসঙ্গে দেখতে চাই।” সোমবার সর্বসমক্ষে এরকম পোস্টার সামনে আসার পর রাজ্যে রাজনৈতিক জল্পনা বেড়েছে। একেতেই বিধানসভা নির্বাচনের আগে একে একে দল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন তৃণমূলের নেতারা। আরেকদিকে, এরকম সময় তৃণমূলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য তথা রাজ্যের মন্ত্রীকে এহেন পোস্টার চাঞ্চল্য আরও বাড়িয়েছে।

যদিও খোদ মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী এগুলোকে গুজব আর চক্রান্ত বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। উল্লেখ্য, আজ সকালে পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের নতুনহাট কৃষিমান্ডির পাশে একটি পোস্টার দেখতে পারে স্থানীয়রা। ওই পোস্টারে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী আর রাজ্যের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহর ছবি ছাপা ছিল। পোস্টারের হেডিং দেওয়া ছিল, ‘আমরা দুই দাদার অনুগামী।” এছাড়াও পোস্টারে লেখা ছিল, ‘অধীর চৌধুরী আর সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরীকে আমরা একসাথে দেখতে চাই।”

এই পোস্টার সামনে আসার পর জোর জল্পনা সৃষ্টি হয়। সবার মনে একটাই প্রশ্ন ঘোরে, তাহলে কি এবার রাজ্যের গ্রন্থাগার মন্ত্রী তৃণমূল ছাড়ছেন? কিন্তু এরকম জল্পনার অবসান ঘটান স্বয়ং সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমার জানা আছে এটা কে বা কারা করতে পারে। তবে আমি কারোর নাম নিচ্ছি না। ওঁরা এভাবে ষড়যন্ত্র করে আমাকে চমকানোর চেষ্টা করছে। আর এভাবেই ওঁরা নিজেদের আখের গোছাতে চায়।”

সিদ্দিকুল্লাহর এই মন্তব্যটিকে বেশ ইঙ্গিতপূর্ণ বলেই ধরা হচ্ছে। কারণ তিনি এখানে ইশারায় ইশারায় নিজেদের দলের একাংশের দিকে আঙুল তুলছেন। বলে রাখি, বিগত কিছুদিন ধরে রাজ্যের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ আর বীরভূমের তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের সম্পর্ক তেমন ভালো নেই। দুজনেই দুজনের বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন। আর এরমধ্যে এহেন পোস্টারের পিছনে অনুব্রত মণ্ডলের হাত দেখছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। কারণ অনুব্রত বাবু মঙ্গলকোটের সাংগঠনিক দায়িত্বে আছেন।

Related Articles

Back to top button