নতুন খবরভারতবর্ষ

নিজের ধর্মকে শ্রদ্ধা, আর হিন্দু ধর্মকে নিয়ে খিল্লি করলো মীর! মীরাক্কেল বয়কটের ডাক জনতার

নিজের ছবিকে সেকুলার রেখে অতি চালাকির সাথে কোনো ধর্মের উপহাস করার ঘটনা প্রায়শই সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠে আসে। এবার এমন ধরনের অভিযোগ উঠেছে কৌতুকশিল্পী হিসেবে পরিচিত মীর আফসার আলীর বিরুদ্ধে। আসলে মীরের দ্বারা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা দুটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। আসলে মীর আফসার আলী তার ফেসবুক হ্যান্ডেল থেকে দূর্গা পূজার অষ্টমীর দিন একটা পোস্ট করেছিলেন। অন্যদিকে নবী দিবসের শুভেচ্ছা জানাতে সম্প্রতি একটা পোস্ট করেছিলেন।

আর ওই দুটি পোষ্টকে নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক। মীর দুর্গাপুজার অষ্টমীর দিন তার ফেসবুক হ্যান্ডেল থেকে লিখেছিলেন- ” শুভ মহা অষ্ট-মীর শুভেচ্ছা’ এর সাথে মীর কিছু মজার ইমোজিও দিয়েছিলেন। শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে মীর বিদ্যাবালনের এক ছবিও শেয়ার করেছিলেন যা একরকম অদ্ভুত। ওই ছবি দেখে অনেকেই পুজোর শুভেচ্ছার পোস্টের উপর হাসির রিয়াক্ট দিয়েছেন।

তবে শুধু অষ্টমীর পোস্ট নিয়ে নয়, ষষ্ঠী, সপ্তমী, নবমী, দশমী নিয়েও মীর আফসার আলী যে পোস্ট করেছেন তার উপর সোশ্যাল মিডিয়া শুরু হয়েছে বিতর্ক।

অন্যদিকে নবী দিবসের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে মীর আফসার আলী একবারে সাধারণ ভাবে পোস্ট করেছেন। এক্ষেত্রে মীর কোনো হাস্যকর পোস্ট করেননি। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে সমালোচনা। বহু নেটিজন মীরের এমন কান্ডের কারণে তার অনুষ্ঠান বয়কট করার ডাক দিয়েছেন।

এক সোশ্যাল মিডিয়া ইউজার পোস্ট করে লিখেছেন, “এক মীর কিন্তু দুই ধর্মীয় উৎসবে দুই ধরনের শুভেচ্ছা। একটাই সিরিয়াস আরেকটায় খিল্লির পর খিল্লি। এর পরেও কিছু লোক এর অনুষ্ঠান দেখবে, শুনবে। তাদের লজ্জা করবে না।” একইভাবে আরেক জন ইউজার মীরের সমালোচনা করে লিখেছেন, “এর পরেও মীরকে হাতে বাটি না ধরানোর কারণটা লিখে যান।”

এমনকি মীরের পোস্টের কমেন্টেও অনেকে নিন্দা জানিয়েছেন। কমেন্ট বক্সে একজন লিখেছেন, “বিশ্বাস করো মীর দা বিদ্যা বালনের জায়গায় মা দুর্গার ছবি পোস্ট করলেও একই লাইক কমেন্ট পেতে। তোমার জনপ্রিয়তায় বিন্দু মাত্র ভাটা পড়তো না। অষ্টমীর সকালে এরকম একটা পোস্ট দেখে কিঞ্চিৎ বিরক্ত হলাম। পোস্টটা তুলে নাও!”অনেকে আবার ছবি পোস্ট করে লিখেছেন- নিজের ধর্মের বেলায় ভদ্রতা অন্য ধর্মের বেলায় মজা আর তাচ্ছিল্য।

Back to top button
Close