Press "Enter" to skip to content

গুরুদ্বারায় উগ্রবাদী মুসলিমদের হামলা! এলাকার নাম পালটে শিখেদের শহর থেকে তাড়ানোর হুমকি মুসলিমদের

শেয়ার করুন -

পাকিস্তানের ননকানা সাহিব গুরদ্বারাতে হামলা করলো দুষ্কৃতীরা। প্রথমে গুরুদ্বারাতে পাথর ছুঁড়ে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা, এরপর শিখদের বিরুদ্ধে স্লোগানও দেয় তাঁরা। দুষ্কৃতীদের হামলার কারণে প্রথমবার গুরুদ্বারাতে ভজন কীর্তন বন্ধ হয়ে যায়। হাজার হাজার মানুষ গুরুদ্বারাকে চারিদিক থেকে ঘিরে নেয়।

এই ভিড়ের নেতৃত্বে ছিল মোহম্মদ হুসেইন এর পরিবার। এই পরিবারের বিরুদ্ধে এক শিখ তরুণীকে জোর করে ধর্ম পরিবর্তনের অভিযোগ তুলেছিল শিখেরা। এই ঘটনার পর প্রচুর পরিমাণে পুলিশ মোতায়েন করা হয় এলাকায়। কিন্তু পুলিশের সামনেও হামলাকারীরা গুরুদ্বারা আর শিখেদের বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়েই যায়। এই ঘটনার পর পাকিস্তানের শিখ সম্প্রদায় চরম আতঙ্কে রয়েছে।

এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়, যেখানে গুরুদ্বারার বাইরে জড় হওয়া উগ্র ভিড়কে দেখা যায়। কট্টরপন্থীরা শিখেদের বিরুদ্ধে স্লোগান আর তাঁদের শহর থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। শুধু তাই নয়, শিখেদের পবিত্র শহরের নাম বদলানোর হুমকিও দেয় তাঁরা।

ভিড় দাবি করে যে, তাঁরা খুব শীঘ্রই শিখেদের পবিত্র স্থলের নাম পাল্টে গুলাম মুস্তাফা করে দেবে। উগ্র প্রদর্শনকারীরা জানায়, তাঁরা ননকানায় একটাও শিখকে থাকতে দেবেনা। ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে কয়েকজনকে গ্রেফতার করে।