নতুন খবরভারতবর্ষ

প্রতিটি বিদেশি সামগ্রীতে উল্লেখ থাকতে হবে দেশের নাম, নাহলেই এক বছরের জেল! কড়া আইনের পথে মোদী সরকার

নয়া দিল্লীঃ ভারত (India) চীন (China) সীমান্ত বিবাদের পর গোটা দেশ চীনের বিরুদ্ধে একজোট হয়েছে। গোটা দেশেই চীনের কোম্পানি আর সামগ্রীর বহিষ্কার শুরু হয়েছে। দেশে চাইনিজ সামগ্রী বহিস্কারের ধুম এতটাই চড়েছে যে, এবার থেকে ই-কমার্স কোম্পানি গুলোকে নিজেদের প্ল্যাটফর্মে বিক্রি করা সমস্ত সামগ্রীর দেশের নাম উল্লেখ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যদি ই-কমার্স কোম্পানি গুলো সামগ্রীর প্রস্তুতকারী দেশের নাম না লেখে, তাহলে তাদের উপর এক লক্ষ টাকার জরিমানা আর এক বছরের জেল হতে পারে।

আপনাদের জানিয়ে দিই, গ্রাহক পরিষেবা মামলায় মন্ত্রালয় এরকম কোম্পানির বিরুদ্ধে অ্যাকশনের জন্য সেন্ট্রাল কনজিউমার প্রোটেকশন অথরিটির গঠন করা হয়েছে। সেই কমিটি স্বাধীন ভাবে কাজ করে কেন্দ্র সরকারের নির্দেশে এরকম কোম্পানির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে পারবে। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান বলেন, উনি সমস্ত ই-কমার্স কোম্পানি আর রাজ্য সরকারকে চিঠি লিখে জানিয়েছেন যে, প্রতিটি প্রোডাক্টের উপর সেটি কোন দেশে তৈরি লিখতে হবে।

গ্রাহক মামলায় মন্ত্রালয়ের সচিব লীলা নন্দন বলেছেন, যদি কোন কোম্পানি এই নিয়মের পালন না করে, তাহলে প্রথমবার তাদের ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে। দ্বিতীয়বার ৫০ হাজার টাকা আর এরপর কোম্পানিকে এক লক্ষ টাকা অথবা এক বছরের জেলের সাজা হবে। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে দুটোই হতে পারে।

আরেকদিকে, অ্যামাজন এবং ফ্লিপকার্ট সরকারের কাছে সেই সমস্ত প্রোডাক্ট নিয়ে জানতে চেয়েছে যেগুলো ভারতে তৈরি কিন্তু তাদের প্রধান অফিস চীন অথবা অন্য কোন দেশে আছে। যদিও অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট আর স্ন্যাপডিল এই মামলায় এখনো পর্যন্ত কোন অফিসিয়ালি বয়ান জারি করেনি।

Back to top button
Close