নতুন খবররাজনীতি

ছাগল ও মুরগি চুরির মামলায় স্বস্তি পেলেন আজম খান! জমি চুরির মামলায় এখনও বিপদে সমাজবাদী পার্টির এই দাপুটে নেতা।

রামপুরের সমাজবাদী পার্টির সাংসদ (Mohd. ) এলাহাবাদ হাইকোর্ট থেকে আজ বড় স্বস্তি পেয়েছেন। ের পক্ষে করা আগাম জামিনের আবেদনের শুনানি চলাকালীন হাইকোর্ট ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত তার গ্রেপ্তার স্থগিত করেছেন। এসপি সাংসদ তার বিরুদ্ধে  ১৬ টি বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছিলেন। এর মধ্যে ছাগল এবং মুরগি চুরির বিখ্যাত মামলাগুলি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আবেদনের শুনানি চলাকালীন ের আইনজীবী আদালতে যুক্তি দিয়েছিলেন যে তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা নিয়ে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে।

আজম খানের দাবি তার বিরুদ্ধে করা মামলাগুলি বেশিরভাগ যুক্তিহীন। আজম খানের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলার মধ্যে ইয়তিম খান ও ওয়াকফের সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের অভিযোগে সাতটি মামলা হয়েছে, আর নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ছয়টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মুরগি ও ছাগল চুরির অভিযোগের সাথে সম্পর্কিত একটি মামলাও রয়েছে।

অন্যদিকে রামপুরের প্রাক্তন সাংসদ ও বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধেও নির্বাচনের সময় অশালীন মন্তব্যের একটি মামলাও দায়ের করা হয়েছে। এলাহাবাদ হাইকোর্টের সামনে ইতিমধ্যে ২৭ টি মামলায় আজমের গ্রেপ্তার স্থগিত রয়েছে। এইভাবে, উচ্চ আদালত এখনও পর্যন্ত ৪৩ টি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা থেকে মুক্তি দিয়েছে।

আজম খানকে অনেকে বড়ো ভু-মাফিয়া বলে আখ্যা দেন। বিজেপি প্রার্থী জয়াপ্রদার উপর অভদ্র মন্তব্য করে ব্যাপকভাবে সমালোচনার শিকার হয়েছিলেন। একইভাবে নিজের ইউনিভার্সিটি তৈরি করার সময় সরকারি জমি চুরি করেছিলেন। যোগী সরকার আসার পর সেই জমি পুনরুদ্ধার করা হয়েছিল। যোগী সরকার বুল ডোজার নামিয়ে ইউনিভার্সিটির দেওয়াল ভেঙে জমি পুনরুদ্ধার করেছিল।

Back to top button
Close