Press "Enter" to skip to content

কোভিড কাড়ল নগেন্দ্র ত্রিপাঠির মায়ের প্রাণ, শেষকৃত্য সেরেই ভোটের দায়িত্বে ফিরবেন কর্তব্যে অবিচল ছেলে

শেয়ার করুন -

কলকাতাঃ মনে আছে সেই নগেন্দ্র ত্রিপাঠি কে? যিনি নন্দীগ্রামের বয়ালের বুথে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোখে চোখ রেখে বলেছিলেন, ‘ম্যাডাম খাকি পরে দাগ নেব না।” ওই ঘটনার পর রাতারাতি মানুষের চোখে হিরো হয়ে যান তিনি। একজন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এভাবে কথা বলার সাহস খুবই কম পুলিশ আধিকারিকের মধ্যে রয়েছে। আর সেই তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠি।

নন্দীগ্রামের নির্বাচনের দিন এলাকায় শান্তি, সুরক্ষা এবং নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠি। সেদিন তিনি নিজের দায়িত্ব নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করে কমিশনের নজরেও চলে এসেছিলেন। এরপরই ওনাকে বীরভূমে অনুব্রত মণ্ডলের গড়ের দায়িত্ব দেওয়া হয় দু’দিন আগে। কিন্তু এরই মধ্যে ঘটে যায় বিপত্তি।

বুধবার IPS নগেন্দ্র ত্রিপাঠির মা বুধবার সকালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারান। এরপরি নিজের বাড়ি উত্তরপ্রদেশের গোরখপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠি। মূলত উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা তিনি। কিন্তু একুশের নির্বাচনে ওনার অসামান্য কৃতিত্ব বাঙালীদের মনে ব্যাপক ছাপ ফেলেছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, তাহলে কি মায়ের প্রয়াত হওয়ার পর তিনি বীরভূমের ভোট দায়িত্ব পালন করবেন না?

না, তেমনটা নয়। নগেন্দ্র ত্রিপাঠি আজ সকালেই গোরখপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন। সেখানে মায়ের শেষকৃত্য সম্পন্ন করে শুক্রবার দিনই তিনি আবার বাংলায় ফিরে আসবেন। আর বাংলায় এসে অনুব্রত মণ্ডলের ডেরায় পুলিশগিরি দেখাবেন। নগেন্দ্রবাবু বলেন, ‘মায়ের বয়স ৭০ হয়েছে, উনি অসুস্থও ছিলেন না। কিন্তু কোভিড ওনার প্রাণ কেড়ে নিল।”

নগেন্দ্রবাবু জানান, ‘মায়ের খুব ইচ্ছে ছিল সোমনাথ মন্দির আর দ্বারকা ঘুরে দেখা। আমি ওনার ইচ্ছে পূরণ করেছিলাম গতবছরই। তবে ওনার দেশে আরও ঘোরার ইচ্ছে ছিল।” ভারি গলায় নগেন্দ্রবাবু বলেন, সেটা আর পূরণ করতে পারলাম না।