নতুন খবরভারতবর্ষ

মুঘল গার্ডেনের নাম পরিবর্তনের দাবি তুললো হিন্দু মহাসভা!দেওয়া হলো ভারতের প্ৰথম রাষ্ট্রপতির নামে নামকরণের প্রস্তাব।

মুঘলরা ভারতের উপর কিভাবে উপদ্রব চালিয়েছে তা এখন ইতিহাসের বইয়ের পাতা থেকে লুকিয়ে রাখা হয়। গ্রামের পর গ্রামকে লুটপাট, নারীদের ধর্ষণ, ব্রাহ্মণদের হত্যা ইত্যাদি নানা কাজে লাগাতার চলতো মুঘল আমলে। শুধু এই নয়, মন্দির ধ্বংস করে সেই স্থানে মসজিদ নির্মাণ করার মতো জঘন্য কাজ করতো মুঘল আতঙ্কবাদীরা। তবে দালাল ইতিহাসবিদরা ভারতের রাজদের কাহিনী লুকিয়ে মুঘলদের চরণ বন্দনা করতে ব্যাস্ত থাকে। দালাল রাজনীতিবিদ ইতিহাসবিদদের বানানো ইতিহাসের কারণে ভারতের ছাত্ররা তাদের মহান রাজদের নাম পর্যন্ত ভুলে গেছে। তবে দেশের জনগণ আরো একবার সচেতন হয়ে মুঘলদের স্মৃতি চিন্হ মুছে দেওয়ার দাবি তুলেছে।

Chakrapani Maharaj

হিন্দু মহাসভা রাষ্ট্রপতি ভবন প্রাঙ্গনে মুঘল উদ্যানটির () নতুন নামকরণ করে দেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি রাজেন্দ্র প্রসাদের () নামকরণ করার দাবি জানিয়েছে। হিন্দু মহাসভার সভাপতি স্বামী চক্রপাণি বলেছেন যে এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথেও দেখা করতে চান।

চক্রপাণি সংবাদ সংস্থা আইএএনকে বলেছেন ওই উদ্যানের নাম পাল্টে দিতে হবে। এর জন্য প্রয়োজন হলে জনমত গঠন করতে হবে। রাষ্ট্রপতি ভবনের অভ্যন্তরে মুঘলদের নামে গ্রহণযোগ্য নয়। সে কারণেই আমি উদ্যানের দেশের প্রথম রাষ্ট্রপতির নামকরণের প্রস্তাব দিয়েছি। ”

চক্রপাণি বলেছিলেন যে তিনি প্রধানমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে অ্যাপয়েন্টমেন্ট চেয়েছেন এবং তিনি তাঁর সাথে সাক্ষাত করবেন। মুঘলদের নামে নামকরণ করা ভবনের নাম পরিবর্তন করার কথা এই প্রথম নয়। এ ছাড়া জাতীয় রাজধানীতে ওরঙ্গজেব মার্গের নাম পরিবর্তন করে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এ.পি.জে. আবদুল কালামের নামানুসারে নামকরণ করা হয়েছে। এটি ছাড়াও উত্তর প্রদেশের যোগী আদিত্যনাথ সরকার মুঘলসরাই রেলস্টেশনের নাম বদলে পণ্ডিত দ্বীন দয়াল উপাধ্যায় জংশন করে দিয়েছে।

Rajendra Prasad

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, কোনো জাতিকে দমিয়ে রাখতে হলে সেই দেশের মানুষের ইতিহাসকে ভুলিয়ে দেওয়া সবথেকে বড়ো ষড়যন্ত্র। মুঘল ও ইংরেজরা ভারতে এসে ভারতের ইতিহাসকে প্রভাবিত করার ব্যাপক ষড়যন্ত্র চালিয়েছে। মুঘল ও ইংরেজদের উত্তর দায়িত্ব সামলেছে বেশিকিছু রাজনীতিবিদ ও ইতিহাসবিদ। যে সব দেশে বৈদেশিক আক্রমন হয়েছে সেই সব দেশ বিদেশী আক্রমণকারীদের সমস্ত চিন্হ মুছে ফেলেছে। কিন্তু ভারত একমাত্র এমন দেশ যেখানের জনগণ আজও রানী ভিক্টরিয়া( চোরদের রানী), ওয়ারেন হেস্টিংস ইত্যাদি যারা ভারতীয়দের পুর্বপুরুষদের অপমান করেছে, লুটপাট চালিয়েছে তাদের মূর্তির সাথে সেলফি তুলতে ব্যাস্ত ভারতীয় যুব সমাজ। এর মূল কারণ ভারতীয় যুব সমাজ ইতিহাসের সঠিক তথ্য জানে না বা জানানো হয়নি।

Back to top button
Close