নতুন খবরভারতবর্ষ

মুঘল মিউজিয়ামের পর এবার তাজমহলের নাম পাল্টে তেজোলয় করার দাবি

লখনউঃ উত্তর প্রদেশে অখিলেশ সরকারের কার্যকালে শুরু হওয়া মুঘল মিউজিয়ামের নাম ছত্রপতি শিবাজী মহারাজ রাখার পর রাজ্যে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়ে গিয়েছে। এবার দেশের বিখ্যাত তথা ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ নিদর্শনের মধ্যে স্থান পাওয়া তাজমহলের (Tajmahal) নাম বদলানোর দাবি উঠেছে। আগরার তাজমহলের নাম বদলানোর পিছনে যুক্তিও দেওয়া হয়েছে। উত্তর প্রদেশের গোসেবা আয়োগের নেতা ভোলে সিং বলেন, এবার সরকারকে তাজমহলের নাম বদলে তেজোলয় করা উচিৎ। উনি তাজমহলকে ভগবান শিবের প্রাচীন মন্দির বলে সেটির নাম বদলানোর তদারকি করেন।

ভোলে সিং বলেন, তাজমহল আদ্যিকালে শিব মন্দির ছিল। এটা ইতিহাসের খুব কঠিন একটি সত্য। উনি বলেন, তেজোলয়ের উপরে মুসলিম শাসকেরা এটিকে ইসলামিক বানায়। উনি দাবি করেন যে, আজও তাজমহলে জলের ফোটা পড়ে, আর এই জল কোথা থেকে পড়ে সেটি বিজ্ঞানীরাও জানতে পারেন নি। ভোলে সিং মুঘল মিউজিয়ামের নাম বদলে ছত্রপতি শিবাজী নাম রাখার জন্য উত্তর প্রদেশ সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। উনি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) প্রশংসা করে বলেন, উনি লাগাতার কড়া সিদ্ধান্ত নিয়ে মুঘলদের চিহ্ন মিটিয়ে দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, সোমবার আগরা মণ্ডলের সমীক্ষা বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ মুঘল মিউজিয়ামের নাম বদলের সিদ্ধান্ত নেন। মুখ্যমন্ত্রী একটি ট্যুইটে এই তথ্য দেন। উনি ট্যুইটে লেখেন, ‘আগরায় নির্মাণাধীন মিউজিয়াম ছত্রপতি শিবাজী মহারাজ নামে পরিচিতি পাবে। নতুন উত্তর প্রদেশের গোলামির মানসিকতার কোনও চিহ্ন থাকবে না। আমাদের সবার নায়ক ছত্রপতি শিবাজী মহারাজ। জয় হিন্দ, জয় ভারত।”

এরপর বিরোধী দল গুলো সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়। সমাজবাদী পার্টি বলে, সরকার শুধু নাম বদলানোর কাজ করছে। আরেকদিকে, কংগ্রেসের তরফ থেকে বলা হয় যে, নাম বদলানোর কোন দরকার ছিল না। এখনকার সময়ে গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা যেমন কৃষি, গরিব, কৃষক আর আইন ব্যবস্থা নিয়ে মাথা ঘামানো উচিৎ সরকারের।

Back to top button
Close