Press "Enter" to skip to content

১০ লক্ষ মানুষ নিয়ে ঐতিহাসিক ব্রিগেড করে তৃণমূলের কফিনে শেষ পেরেক পোঁতার প্রস্তুতি প্রধানমন্ত্রীর

শেয়ার করুন -

কলকাতাঃ বাংলায় পরিবর্তনের লড়াইয়ে আপনাকে শামিল করতে আপনার বাড়ি যেতে পারে বিজেপি। অথবা আপনাকে ফোন করেও ব্রিগেডে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানাতে পারে বিজেপির নেতারা। আগামী ৭ মার্চ মহাব্রিগেডের ডাক দিয়ছে বিজেপি। এই ব্রিগেডের প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর সেইদিন ব্রিগেডে ১০ লক্ষ জমায়েত করার টার্গেট নিয়েছে বিজেপি। উত্তর থেকে দক্ষিণ বঙ্গ, জঙ্গলমহল থেকে সুন্দরবন চারিদিক থেকে ব্রিগেডে লোক নিয়ে আসার পরিকল্পনায় রয়েছে বিজেপি।

উল্লেখ্য, ২০১৯ এর নরেন্দ্র মোদীর ব্রিগেড সমাবেশে নজরে কাড়া ভিড় হয়েছিল। সর্বকালের সেরা ভিড় না হলেও, বিজেপির ইতিহাসে বাংলায় ব্রিগেড সমাবেশের সেরা ভিড় ছিল সেটি। আর এবার তাঁর থেকেও বেশি ভিড় করার প্রস্তুতি নিয়েছে বঙ্গ বিজেপির নেতারা।

গতকাল হেস্টিংসে বিজেপির অফিসে ব্রিগেড নিয়ে বৈঠক সারেন বিজেপির কেন্দ্রীয় এবং রাজ্য নেতারা। আর সেই বৈঠকে এবার ব্রিগেডে ১০ লক্ষ লোক আনার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। আর এই লক্ষ্য পূরণ করতে ৭৮ হাজার বুথে প্রতিটি বাড়ি যাবেন বিজেপির নেতারা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ছবি সহ আমন্ত্রণপত্র দেওয়া হবে মানুষকে।

আগামী ৭ মার্চ ব্রিগেড সমাবেশের দিনে কলকাতা স্তব্ধ করে দেওয়ার চিন্তা ভাবনা নিয়েছে বিজেপি। কলকাতার নানান জায়গায় জায়ান্ট স্ক্রিনের বন্দোবস্ত করে দেওয়া হবে। সেখানে বড় করে দেখানো হবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভা। রাজ্যের ৭৮ হাজার বুথে আমন্ত্রণপত্র বিলির পাশাপাশি গ্রামে গ্রামে মাইকে করে করা হবে প্রচার।

বলে রাখি, রাজ্য জুড়ে গেরুয়া শিবিরের পাঁচটি পরিবর্তন রথযাত্রা চলছে। আর সেই রথযাত্রা গুলোর সমাপ্তি হবে সেদিনের ব্রিগেড সমাবেশে। এই রথযাত্রার মাধ্যমে রাজ্যের দুই কোটি মানুষের কাছে পৌঁছানোর পরিকল্পনা নিয়েছিল বিজেপি।