নতুন খবরভিডিও

“২৬ তারিখে বোঝা যাবে কে মায়ের দুধ” সন্ত্রাসবাদীদের হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন মোদী! ভাইরাল ভিডিও

প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির 30 বছরের পুরনো একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রমশ ভাইরাল হচ্ছে। এই ভিডিওটি 1992 সালে প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে শ্রীনগরে নরেন্দ্র মোদির দেওয়া ভাষণ থেকে নেওয়া। নেশন গুজরাটের ইউটিউবে ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে। এই ভিডিওতে জনগণকে সম্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলছেন, লালচকে পোস্টার লাগানো হয়েছে, যে মায়ের দুধ পান করেছে, সে যেন শ্রীনগরের লাল চকে আসে। এখানে এসে ভারতের তেরঙা পতাকা উত্তোলন করুন, যদি তিনি জীবিত ফিরে আসেন তবে সন্ত্রাসীরা তাকে পুরস্কৃত করবে। ২৬ জানুয়ারি আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাকি। লাল চকে কে তার মায়ের দুধ পান করেছে তা দেখিয়ে দেওয়া হবে।

90-এর দশকে, যখন জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদ চরমে, সেই সময়েও নরেন্দ্র মোদি সন্ত্রাসীদের ভয় পাননি এবং পূর্ণ আত্মবিশ্বাসের সাথে 26 জানুয়ারি শ্রীনগরের লাল চকে মুরলি মনোহর যোশীর সাথে তেরঙা পতাকা উত্তোলন করেছিলেন। 1992 সালে এটি করে তিনি সন্ত্রাসবাদকে যারা লালন-পালন করে তাদেরই শুধু যোগ্য জবাবই দেননি, তাদের বিপজ্জনক পরিকল্পনার সামনে দেশপ্রেমিকদের চেতনা কোনোভাবেই ম্লান হবে না বলে পরবর্তি প্রজন্ম কে এক বার্তা দিয়ে যান।এবং সন্ত্রাসবাদী দের বুঝিয়ে দেন তিনি যতদিন আছেন ভারতের মাটিতে তাদের কোনো জায়গা নেই।

1991 সাল থেকে কন্যাকুমারী থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত বিজেপির একতা যাত্রা’ শুরু হয়েছিল। 370 ধারা সরান, সন্ত্রাস নির্মূল করুন’ ইস্যুতে 30 বছর আগে বের করা বিজেপির একতা যাত্রা দেশবাসী ভুলে যায়নি। কন্যাকুমারী থেকে শুরু হওয়া এই যাত্রা 24 জানুয়ারী 1992 সালে বিজেপির তৎকালীন জাতীয় সভাপতি মুরলি মনোহর যোশীর নেতৃত্বে জম্মু ও কাশ্মীরে পৌঁছেছিল। এতে প্রায় এক লাখ মানুষ অংশ নেন। তাদের সবার একটাই উদ্দেশ্য ছিল, শ্রীনগরের লাল চকে ভারতের তেরঙা পতাকা উত্তোলন করা। ওই সফরে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে ছিলেন জোশি। সেই সময় বিজেপির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন মোদি।

 

90 দশক হোক বা আজকের সময় সন্ত্রাসবাদ কে নির্মূল করার জন্য এখন তিনি লড়ে যাচ্ছেন।পাকিস্তান ও সন্ত্রাসবাদী দের মুখের উপর তার জবাব বরাবর তিনি দিয়ে গেছেন।এমন কি আন্তর্জাতিক মহলে তিনি এই বার্তা দিয়েছেন এটা নতুন ভারত এখানে সন্ত্রাসবাদ ও হিংসার কোনো জায়গা নেই।

Related Articles

Back to top button