Press "Enter" to skip to content

লজ্জিত হল বাবা মেয়ের পবিত্র সম্পর্ক! নিজের নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণ করল মাদ্রাসা শিক্ষক

শেয়ার করুন -

ভারতীয় সমাজে পিতা ও কন্যার সম্পর্ককে বিশেষ পবিত্র সম্পর্ক হিসেবে মনে করা হয়। ভারতে পুত্রের সাথে পিতার সম্পর্ক নিবিড় হোক বা না হোক মেয়ের সাথে বাবার পবিত্র সম্পর্ক অত্যন্ত শক্তিশালী হওয়া চাই। বাবার আত্মার সাথে তার কন্যার আত্মা এক অনন্য অলৌকিক শক্তি দ্বারা যুক্ত থাকে বলে মনে করা হয়।

তবে ভারতের কেরল রাজ্যের কসরগোদ জেলা থেকে এমন খবর সামনে আসছে যা যে কোনো ভারতীয়কে লজ্জিত করবে। কসরগোদ জেলার নীলেশ্বর পুলিশ সোমবার দিন এক মাদ্রসা শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে। নিজের ১৬ বছর বয়সী মেয়েকে ধর্ষণ করার অপরাধে মাদ্রাসা শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা গেছে বিগত ২ বছর ধরে মাদ্রসা শিক্ষক তার মেয়েকে ধর্ষণ ও যৌন শোষণ করেছে। মাদ্রাসার শিক্ষক সহ ৬ জনের নাম এই অপরাধে জড়িত বলে জানা গেছে। পুলিশ মাদ্রাসার শিক্ষক ( মেয়েটির আব্বু) সহ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে।

মাদ্রাসা শিক্ষক ছাড়াও গ্রেপ্তার হওয়া তিন আসামি যথাক্রমে- রিয়াস (১৯), এজাজ (২০) এবং মোহাম্মদ আলী (২০)। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, অভিযুক্ত সাতজনের বিরুদ্ধে POCSO আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এক রিপোর্ট অনুযায়ী, মেয়েটি পুলিশকে জানিয়েছে যে তার বাবা তাকে যৌন শোষণ ও ধর্ষণ করতো। এমনকি গর্ভপাত করিয়েছে বলেও মেয়েটি অভিযোগ করেছে। ২ মাস আগেই মেয়েটির গর্ভপাত করানো হয়েছিল বলে জানা গেছে। যে চিকিৎসক গর্ভপাত করিয়েছেন তার উপরেও পুলিশ একশন নিয়েছে। মেয়েটির মামা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করার পর পুরো ঘটনাটি সামনে এসেছে।