নতুন খবরভারতবর্ষ

বড়োসড়ো বিপদ থেকে বাঁচল দেশ! প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে রাজধানীতে মিলল ৩ কেজির বোমা

আবারও প্রজাতন্ত্র দিবসকে নিয়ে এক নয়া খবর সামনে এলো। রাজধানী শহর দিল্লি এক ভয়াবহ সন্ত্রাস আক্রমণের শিকার হতে যাচ্ছিল। সকাল 9.30 মিনিটে দিল্লির ফ্লাওয়ার মার্কেটে পাওয়া যায় তিন কেজি বিস্ফোরক এবং NSG যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেটিকে আয়ত্তে আনে। অনুমান করা যাচ্ছে প্রজাতন্ত্র দিবসের পূণ্যদিনে এই বিস্ফোরণ ঘটানোর পরিকল্পনা ছিল যার প্রভাব হতো ভয়াবহ। জানিয়ে দি, এবার প্রজাতান্ত্রিক দিবসে মধ্য এশিয়ার পাঁচ দেশ তথা তুর্কেমেনিস্থান, উজবেকিস্তান, কাজাখিস্তান, কিরঘিজস্থান, তাজিকিস্তানের রাষ্ট্রপতিরা ভারত বিশেষত দিল্লী সফর করবেন।

অনুমান করা হচ্ছে এই বিস্ফোরণ প্রকল্পনার পেছনে পাকিস্তানের হাত রয়েছে। পাকিস্তানের সাথে মধ্য এশিয়ার এই পাঁচ দেশের সম্পর্ক ভালো নয়। বিশেষত পাকিস্থান যখন ওআইসির একটা মিটিং করেছিল তখন মধ্য এশিয়ার এই পাঁচ দেশ উপেক্ষা করেছিল এবং এই সব দেশের বিদেশ মন্ত্রীরা ভারতের মিটিংয়ে যোগদান করবে তখন থেকে সম্পর্কের এই ব্যাঘাত।

এই ঘটনার পর পাকিস্থানের কট্টরপন্থীদের সংবাদ মাধ্যমে অনেক বেশি সমালোচনা করতে দেখা গেছে। এমনকি কিছু দিন আগেও যখন কাজাখিস্তানের পরিস্থিতি চরম হয়েছিল তখন পাকিস্তানিরা ব্যাপারটিকে উদযাপন করছিল। পাক উন্মাদীদের দাবি ছিল, ভারতকে তারা সাপোর্ট করেছে বলে আজ দিন দেখতে হচ্ছে। তাই খুব সহজেই বোঝা যাচ্ছে যে মধ্য এশিয়ার এই পাঁচ দেশ যখন ভারতে আসবে তার আগে এই বিস্ফোরণ ঘটানোর পরিকল্পনা যে পাকিস্থানের এটা খুব সহজেই স্পষ্ট।

এমনকি কিছুদিন আগে যখন পাঞ্জাবে এই রকম এক বিস্ফোরক পাওয়া গিয়েছিল, সেখানেও যে পাকিস্থানের ব্যাক গ্রুপের হাত আছে ,পুলিশ সেটা খোলাখুলিই বলে জানিয়েছিল। আগত সময়েও যে পাকিস্তানে র কোনো গ্রুপ ভীতি প্রদর্শন করতে চাইছে তা বোঝাই যাচ্ছে। কিন্তু এই বার NSG র বিস্ফোরকটিকে আয়ত্তে আনার ঘটনাটি বেশ অদ্বিতীয়। NSG এর কমান্ডোরা বিস্ফোরকটির চারি পাশে আট ফুটের এই গর্ত করেন তার পর সেটি নিজে থেকে ফেটে যায়। NSG বিস্ফোরকটিকে খুব নিয়ন্ত্রণের সাথে ফাটানো হয় কিন্তু এটি যদিও জনবহুল এলাকায় ফাটতো তার ফল ব্যাপক ভয়াবহ হতো। জানিয়ে দিন, ভারতকে সুরক্ষিত রাখতে স্পেশাল ইন্টেলিজেন্স ফোর্স, ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড এলার্ট রয়েছে।

Related Articles

Back to top button