পশ্চিমবঙ্গসত্য উদঘাটন

বাংলার কিছু সংবাদমাধ্যম ছড়াচ্ছে ভুয়ো খবর, ভূমিপূজনে নাকি ব্যাবহার করা হয়নি মতুয়াদের মাটি জল!

সংবাদমাধ্যম গণতন্ত্রের সদা-জাগ্রত প্রহরী, গণদেবতার বিচারশালায় সে নিপীড়িত মানুষের পক্ষে সমর্থন করে। গনতন্ত্রের মর্যাদা ধূলিলুণ্ঠিত হলে সংবাদমাধ্যমের নির্ভীক কন্ঠ সেখানে সোচ্চার হয়। তাই সংবাদমাধ্যম জনগনের পবিত্র গণতান্ত্রিক অধিকার-সংরক্ষণের সর্বদা দায়িত্বশীল অভিভাবক। কিন্তু সংবাদ মাধ্যম যখন নিজের ক্ষমতার অপব্যাবহার করে জনগণকে ভ্রমিত করে তখন যেন গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভকে কাঠগোড়ায় দাঁড় করানো অপরিহার্য হয়ে উঠে।

৫ আগস্ট রাম মন্দিরের ভূমি পূজন সম্পন্ন হওয়ার পর থেকে কিছু সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে লাগাতার ভুয়ো খবর ছড়ানোর অভিযোগ উঠেছে। কিছু সংবাদ মাধ্যম হিন্দুদের একতা ভাঙার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে, আবারও কোনো কোনো সংবাদ মাধ্যম মন্দির নির্মাণের বিরুদ্ধে এক তরফা হাওয়া তৈরির সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মতুয়া সম্প্রদায়ের আবেগকে আহত করার অভিযোগও বেশকিছু সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে উঠেছে।

বিতর্কিত খবর

সম্প্রতি বাংলার কিছু সংবাদ মাধ্যমের বিরুদ্ধে ভুয়ো খবর সম্প্রসারণের অভিযোগ তীব্র হয়েছে। রাম মন্দির নির্মানের জন্য মতুয়া তীর্থ ঠাকুর বাড়ির মাটি, জল ব্যাবহার করা হয়নি বলে ভুয়ো খবর ছড়ানো হয়েছিল। বাংলার কিছু সংবাদমাধ্যম সূত্র থেকে আসা খবরের বাহানা দিয়ে এমন খবর ছড়িয়েছে।

বিশ্বহিন্দু পরিষদের তরফ থেকে স্পষ্ট বলা হয়েছে এই ধরনের খবর সম্পূর্ণ ভুল। এই ধরনের খবর উদ্দেশ্যপ্রণিত ভাবে মানুষজনকে বিভ্রান্ত করতে ছড়ানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন ভিএইচপির আন্তর্জাতিক সভাপতি। মতুয়াদের মনে ফাটল তৈরি করে বাংলায় রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে এমন করা হয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে।

Back to top button
Close