অপরাধনতুন খবরভারতবর্ষ

নিকিতা তোমরকে প্রকাশ্যে খুন করে উল্টে পুলিশের ঘাড়ে দোষ চাপাল লাভ জেহাদি তৌসিফ

চণ্ডীগড়ঃ হরিয়ানার ফরিদাবাদ জেলার বল্লভগড়ের ছাত্রী নিকিতা তোমর হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত তৌসিফ পুলিশের বিরুদ্ধে সঠিক ভাবে তদন্ত আর একতরফা তদন্ত করার অভিযোগ তুলে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছে। বৃহস্পতিবার দাখিল আবেদনের শুনানি হয়। আগামী শুনানি ৭ই জানুয়ারি হবে।

অভিযুক্ত পক্ষের আইনজীবী আনিস খান জানান, তিনি ১ ডিসেম্বর আদালতে পিটিশন দাখিল করে আবেদন জানিয়েছিলেন। সেটা নিয়ে বৃহস্পতিবার শুনানি হয়। বিচারক অলকা সরিনের বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হয়। এই শুনানিতে দুই পক্ষই উপস্থিত ছিল। আনিস খান অভিযোগ করে বলেছেন যে, পুলিশ চার্জশিট দাখিল করতে অনেক তাড়াহুড়ো করে ফেলেছে।

তিন মাসের সময় থাকার পরেও পুলিশ সামাজিক চাপে অভিযুক্ত পক্ষের তদন্ত করার আগেই চার্জশিট দাখিল করেছে। তিনি এও জানান যে, তদন্ত করার পর পুলিশ নিজের চার্জশিটে বলেছে যে, শুনানির সময় আরও কিছু প্রমাণ পেলে চার্জশিটে জুড়ে দেওয়া হবে। আর সেই কারণে তাদের তদন্তে প্রশ্ন উঠিয়েছেন আনিস খান।

আইনজীবী আনিস খান অভিযোগ করে বলেছেন যে পুলিশ ফরেনসিকের রিপোর্ট আসার আগেই দশ জনের থেকে সাক্ষ্য নিয়ে নিয়েছে। ফাস্ট ট্র্যাক আদালতে এই মামলা চলার পরেও এটিকে তড়িঘড়ি মেটানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন আনিস খান। আনিস খানের পিটিশন দাখিল করার পর আদালত পুলিশকে পুঙ্খানুপুঙ্খ রিপোর্ট জোগাড় করার নির্দেশ দিয়েছে।

নিকিতা তোমর (Nikita Tomar) মামলায় প্রসিকিউটর বুধবার ছয়জন সাক্ষ্য পেশ করে। যদিও শুনানি দীর্ঘ চলার কারণে মাত্র চারজনেরই বয়ান দায়ের করা সম্ভব হয়। সাক্ষ্যদের মধ্যে দুজন কলেজের পরীক্ষার  ইনচার্জ ছিলেন, যারা নিকিতার ঘটনার দিন কলেজে পরীক্ষা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এছাড়াও পরীক্ষা কর্মীরা ছিলেন, যারা ত্যার কারণ পরিষ্কার করার জন্য দু’বছর আগে অপহরণের ঘটনার ফাইল আদালতে উপস্থাপন করেছিলেন।

Related Articles

Back to top button