Press "Enter" to skip to content

৪০০ বছরের পুরনো গাছ বাঁচাতে হাইওয়ের নকশা বদলে দিলেন নিতিন গড়কড়ি, গোটা দেশে হচ্ছে প্রশংসা

শেয়ার করুন -

মুম্বাইঃ মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) সাঙ্গলি জেলার ভোসে গ্রামে ৪০০ বছরের পুরনো বট গাছ আবারও শিরোনামে উঠে এলো। উল্লেখ্য, এই গাছকে বাঁচাতে কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ মন্ত্রী নিতিন গড়কড়ি (Nitin Gadkari) নির্মাণাধীন হাইওয়ের নকশাই বদলে দিয়েছেন। শোনা যাচ্ছে যে, নির্মাণাধীন রত্নাগিরি-নাগপুর হাইওয়ে নম্বর ১৬৬ এর মাঝে এই বিশালাকৃতির ৪০০ বছরের পুরনো বটগাছ পড়ছিল। শোনা যাচ্ছিল যে, রাস্তা বানানোর জন্য এই গাছটিকে কাটার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিল, আর সেটার বিরোধিতা হয় চারিদিকে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হওয়া এই বিরোধিতার আওয়াজ শুক্রবার মহারাষ্ট্রের পরিবেশ মন্ত্রী আদিত্য ঠাকরের কার্যালয় পর্যন্ত পৌঁছায়। এরপর আদিত্য ঠাকরে এই নিয়ে তৎক্ষণাৎ নিতিন গড়কড়ির সাথে কথা বলেন, আর ওনাকে এই গাছটিকে বাঁচানোর আবেদন জানান। আদিত্য ঠাকরের সাথে কথা বলার পরেই নিতিন গড়কড়ি হাইওয়ের নকশা বদল করে এই প্রোজেক্ট সম্পূর্ণ করার আদেশ দেন।

জানিয়ে দিই, নির্মাণাধীন রত্নাগিরি-নাগপুর ১৬৬ নং হাইওয়ে সাঙ্গলি জেলার ভোসে গ্রাম হয়ে যাবে। ওই হাইওয়ের রাস্তা ৪০০ বছরের পুরনো এক বটবৃক্ষ আছে, সেটিকে কাটারও প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। সাঙ্গলির পরিবেশবিদ এবং সামাজিক কর্মীরা ওই গাছটিকে যাতে না কাটা হয়, তাঁর জন্য প্রতিবাদ করছিল। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই প্রতিবাদের খবর মহারাষ্ট্রের পরিবেশ মন্ত্রী আদিত্য ঠাকরের কাছে পৌঁছায়। এরপরই উনি এই কাজে দখল দেন। তিনি তৎক্ষণাৎ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিতিন গড়কড়ির সাথে যোগাযোগ করেন। এবং নিতিন গড়কড়ি আদেশ দেন যে, ওই গাছের কিছু না করেই যেন রাস্তার কাজ সম্পূর্ণ করা হয়।

জানিয়ে দিই, নিতিন গড়কড়ি নিজের বিভাগের আধিকারিকদের সাথে এই বিষয়ে কথা বলেন। এরপরই এই রাস্তার নকশায় বদল এনে ৪০০ বছরের পুরনো বট গাছকে ক্ষতি না করেই রাস্তার কাজ সম্পূর্ণ করার আদেশ দেওয়া হয়।