নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গভারতবর্ষ

আর কেউ অবৈধ ভাবে ঢুকতে পারবে না ভারতে, পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশ সীমান্তে কড়া প্রস্তুতি BSF-র

নয়া দিল্লিঃ পশ্চিমবঙ্গ সংলগ্ন ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে আধুনিক বেড়া দেওয়া হচ্ছে। বিএসএফ এই সীমান্তে এমন তারের স্থাপন করছে, যা কাটা বা চড়া সম্ভব নয়। বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ারের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের আইজি অজয় ​​সিং বলেন, বর্তমান বেড়াটি অনেক পুরনো। তার জায়গায় নতুন ও মজবুত বেড়া দেওয়া হচ্ছে। প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকায় অত্যাধুনিক ওয়্যারিং করা হয়েছে। আইজি সিং বলেন, নতুন এই বেড়া চড়াও যাবে না, কাটাও যাবে না। এমনকি এই বেড়া সস্তা এবং টেকসই।

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে অনুপ্রবেশ একটি বড় সমস্যা। এই সীমান্ত থেকে চোরাচালান ও অবৈধ চলাচল রোধে বিএসএফ সক্রিয়ভাবে নিয়োজিত রয়েছে। তাই সীমান্তে অত্যাধুনিক বেড়া বসানো হচ্ছে। ভারত-পাকিস্তান এবং ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে অনুপ্রবেশ, চোরাচালান এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণ করতে বিএসএফ অনেক কৌশল ব্যবহার করছে। এই প্রযুক্তির মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি-টানেল সমাধান, আইইডি সনাক্তকরণ এবং ঘন কুয়াশার মধ্যে বর্ডার গার্ডিং ডিভাইস।

বিএসএফ দেশে উপস্থিত নজরদারি সরঞ্জামের সহায়তাও নিচ্ছে। এতে অনেক উপকারও হয়েছে। ব্যাপক সমন্বিত বর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, যে কাজে বহুজাতিক কোম্পানিগুলো নিয়োজিত হয়েছে, তা অনেক ব্যয়বহুল। সীমান্ত নজরদারির জন্য এখন কম দামি ও দেশীয় যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হচ্ছে।

তিন-চার বছর আগে বিএসএফে ‘কমপ্রিহেনসিভ ইন্টিগ্রেটেড বর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’ (সিআইবিএমএস) এর ট্রায়াল শুরু হয়েছিল। পাকিস্তান ও বাংলাদেশ সীমান্তে এই প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা স্থাপন করা হচ্ছে। এর বড় সুবিধা হল এর সাহায্যে খারাপ আবহাওয়া, কুয়াশা এবং তুষারপাতের সময় মানুষ, পশু, পাখি এবং অন্যান্য সরঞ্জামের ছবি স্পষ্টভাবে দেখা যায়।

Related Articles

Back to top button