Press "Enter" to skip to content

উত্তর কোরিয়ায় ধরা পড়ল প্রথম করোনা রোগী, ঘুম উড়ল কিম প্রশাসনের

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ উত্তর কোরিয়ায় (north korea) করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) প্রথম মামলা সামনে এসেছে। করোনা ভাইরাসের প্রথম মামলা সামনে আসার পর কিম জং উন (Kim Jong-un) প্রশাসন বর্ডার এলাকায় লকডাউন লাগু করে দিয়েছে। শোনা যাচ্ছে করোনা এই বর্ডার পার করেই দেশে ঢুকেছিল। ওই ব্যাক্তি তিন বছর আগে দক্ষিণ কোরিয়া গেছিল, আর সে অবৈধ ভাবে উত্তর কোরিয়ায় ঢুকেছিল।

দেশের মিডিয়া রবিবার এই লকডাউনের সূচনা দিয়ে জানায়, কিম জং উন অনুযায়ী, করোনার দুষ্ট ভাইরাস উত্তর কোরিয়ায় প্রবেশ করেছে। যদি ওই ব্যাক্তিকে আধিকারিক হিসেবে ঘোষণা করে দেওয়া হয়, তাহলে এটিই উত্তর কোরিয়ায় সর্বপ্রথম করোনার মামলা হবে। উত্তর কোরিয়ায় লাগাতার বলত যে, তাঁদের দেশে করোনার কোন মামলা নেই, কিন্তু উত্তর কোরিয়ার এই দাবিতে অন্যান্য দেশ গুলো লাগাতার প্রশ্ন তুলত।

কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে যে, এই মামলা এক অনুপ্রবেশকারীর সাথে যুক্ত। ওই ব্যাক্তি দক্ষিণ কয়েক বছর আগে কোরিয়া থেকে পালিয়ে গেছিল। আর গত সপ্তাহে সে অবৈধ ভাবে উত্তর কোরিয়ায় প্রবেশ করে। কেসিএনএ অনুযায়ী, শ্বাসযন্ত্রের ক্ষরণ আড় রক্তের পরীক্ষার পর জানা গিয়েছে যে, ওই ব্যাক্তি করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন। ওই ব্যাক্তির সম্পর্কে আসা সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে উত্তর কোরিয়া তাঁদের প্রায় সমস্ত সীমান্ত এই বছরের শুরুতেই বন্ধ করে দিয়েছিল। বিদেশী পর্যটকদের যাতায়াতও বন্ধ করে দিয়েছিল কিমের দেশ। কিম প্রথম থেকেই নিজেদের দেশে করোনা নিয়ে সতর্কতা জারি করেছিল। স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে হালকা জ্বর অথবা কাশির লক্ষণ হলেও তাঁদেরকে কোয়ারেন্টাইন করার আদেশ দেওয়া হয়েছিল।