নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

পান্ডুয়ায় নুসরত জাহানের রোড শোয়ে মিলল না সাড়া, দেখা পাওয়া গেল না তৃণমূল প্রার্থীরও

পান্ডুয়াঃ তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) এবার স্টার প্রচারকদের তালিকায় নাম আছে রাজ্যের একাধিক টলিউডের অভিনেতা/অভিনেত্রীদের। নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হওয়ার আগে তৃণমূল ‘দুয়ারে তারকা” বলে একটি ক্যাম্পেন শুরু করেছিল, সেই ক্যাম্পেন অনুযায়ী দেব, নুসরত, মিমির মতো তৃণমূলের তারকা সাংসদ সহ টলিউডের অভিনেতা/অভিনেত্রীদের মানুষের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে তৃণমূলের হয়ে ভোট চাওয়ায় আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাজের খতিয়ান তুলে ধরার লক্ষ্য রাখা হয়েছিল।

মানুষের কাছে তারকাদের পৌঁছে দেওয়ার জন্য একুশের নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেক তারকাকে টিকিট দিয়েছেন। এবং যাদের টিকিট দিতে পারেন নি, তাঁদের নিয়ে কিছু রোড শো করাচ্ছেন। যদিও, তারকাদের টিকিট দেওয়াতে পিছিয়ে নেই বিজেপিও। শ্রাবন্তী, হিরণ, যশ সমেত অনেক তারকাকে এবার নির্বাচনী ময়দানে নামিয়েছে গেরুয়া শিবির।

আরেকদিকে, তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) তারকা সাংসদ নুসরত জাহানকে (Nusrat Jahan) দিয়ে একাধিক জায়গায় রোড শো এবং সভা করাচ্ছে তৃণমূল নেতৃত্ব। আজ সেই ক্রমেই পান্ডুয়ায় প্রচারে গিয়েছিলেন নুসরত জাহান। সেখানে গিয়ে তিনি একটি রোড শোয়ে অংশ নেন। কিন্তু সেই রোড শোয়ে তুলনামূলক ভাবে তেমন ভিড় চোখে পড়েনি। আবার দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচারে আসা নুসরতের সঙ্গে ছিল না পান্ডুয়ার তৃণমূল প্রার্থী রত্না দে নাগ।

লোকসভা ভোটে হুগলির তৃণমূল প্রার্থী হয়েছিলেন রত্না দে নাগ। কিন্তু সেবার তিনি বিজেপির প্রার্থী লকেট চ্যাটার্জীর কাছে হেরে যান। এরপর থেকে ওনাকে দলের তেমন কোনও কর্মসূচিতে দেখা যায়নি আর। শোনা গিয়েছিল যে, তিনি শারীরিক অসুস্থতার কারণে এবারের নির্বাচনে দাঁড়াতে চাননি। কিন্তু তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওনাকে পান্ডুয়া বিধানসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করেন। শুক্রবার ওনার সমর্থনেই রোড শো করেছিলেন নুসরত জাহান। কিন্তু ওই রোড শোয়ে না রত্না দে নাগ ছিলেন, আর না তেমন ভিড়।

পান্ডুয়ার বিজেপি প্রার্থী পার্থ শর্মা নুসরত জাহানের রোড শো নিয়ে কটাক্ষ করে বলেছেন, ‘পান্ডুয়ায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চরমে। আর সেই কারণেই আজ নুসরতের মহামিছিল সুপার ফ্লপ।” আরেকদিকে, পান্ডুয়ার তৃণমূল ব্লক সহসভাপতি সঞ্জয় ঘোষ বলেন, রত্না দে নাগ আজ অন্য জায়গায় ভোট প্রচারে ব্যস্ত ছিলেন, তাই তিনি এখানে আসতে পারেন নি। প্রার্থী থাকলেও কি, না থাকলেও কি আমাদের কোনও সমস্যা নেই। কারণ আমরা সবাই তৃণমূল পরিবারের সদস্য। বিজেপি পান্ডুয়ায় তিন নম্বর পজিশনে থাকবে, তাই আমাদের নামে কুৎসা রটাচ্ছে।”

Related Articles

Back to top button