নতুন খবরভারতবর্ষ

অসমের মুসলিম নেতা বললেন, ‘আমি হিন্দু! রাম মন্দির নির্মাণের জন্য দেব পাঁচ লক্ষ টাকা”

অসমে সংখ্যালঘু কমিশনের সভাপতি () অযোধ্যায় () নির্মাণের জন্য অসমের অনেক কয়েকটি মুসলিম সংগঠনের সহায়তায় পাঁচ লক্ষ টাকার আর্থিক রাশি দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন। উনি মাঘ মেলায় স্বামী অধোক্ষ্যানন্দ শিবিরে গঙ্গা স্নানও করেন। এরপর উনি সেখানে সাধু সন্ন্যাসীদের সাথে ভোজন করেন আর সন্ন্যাসীদের থেকে আশীর্বাদ নেন।

মুমিনুল বলেন, যেমন ভাবে অসমের মানুষ নিজেদের অসমীয়া বলেন। সেরকম ভাবেই হিন্দুস্তানে থাকা সবাই হিন্দু। আমাদের ধর্ম ইসলাম, কিন্তু হিন্দুস্তানের নাগরিক হওয়ার সুবাদে আমি নিজেকে গর্ব করে হিন্দু বলি। নাগরিকতা সংশোধন আইন নিয়ে করা প্রশ্নে উনি বলেন, ‘এই আইন নাগরিকতা দেওয়ার জন্য, কারোর নাগরিকতা কাড়ার জন্য না। বিদেশী শক্তিরা মুসলিমদের উস্কাচ্ছে। হিন্দুস্তান আমাদের দেশ, আমরা এখানেই জন্মেছে আর এখানেই থাকব। আর এর জন্য আমাদের উচিৎ আমাদের দেশ নিয়ে ভাবা। অন্যের উসকানিতে কান না দেওয়া।

মুমিনুল অযোধ্যা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তকে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়ে অসমের ২১ টি মুসলিম সংগঠনের সভাপতি হিসেবে রাম মন্দির নির্মাণের জন্য পাঁচ লক্ষ টাকা সাহায্যের কথা ঘোষণা করেন। অসমের এই মুসলিম সংগঠন গুলো দেশে একটা বজায় রাখা এবং হিন্দুদের প্রতি আস্থা দেখিয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা সাহায্য দেওয়ার কথা ঘোষণা করে।

মুমিনুল সিএএ নিয়ে দেশ জুড়ে চলা হিংসাত্মক প্রদর্শনের পিছনে বিদেশী শক্তির হাত আছে বলে জানান। উনি বলেন, বিদেশী শক্তিরা পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার মাধ্যমে দেশের শান্তি ভঙ্গ করছে। তাঁরা ভারতকে শান্তিতে থাকতে দেখতে চায়না, আর এর জন্য দেশে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে অশান্তি সৃষ্টি করছে।

Back to top button
Close