Press "Enter" to skip to content

ভারত বিরোধী শক্তির সাথে হাত মিলিয়ে নিল কংগ্রেস পার্টি! তুর্কিতে খুলল পার্টির নতুন দফতর।

শেয়ার করুন -

আবারও কংগ্রেস পার্টির এক পদক্ষেপ তদের নতুন বিতর্কে জড়িয়ে দিয়েছে।আসলে তুর্কী UN তে ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলেছিল। সেই হিসেবে ভারত তুর্কীর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। ভারত সরকার তুর্কীর সাথে বেশ কিছু চুক্তি বাতিল করার পর তাদের পর্যটন ক্ষেত্রেও আঘাত আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। সেহেতু ভারত সরকার একটা নির্দেশিকা জারি করেছিল। ভারত থেকে ব্যাপক সংখ্যায় পর্যটক তুর্কী যায়। সেখান থেকে তুর্কী একটা মোটা অনেকের টাকা আয় করে।  তুর্কীতে পরিস্থিতি খারাপ এই বাহানা দিয়ে ভারত সরকার পর্যটকদের জন্য এডভাইজারি জারি করেছে। কিন্তু কংগ্রেস পার্টি এখন সেই তুর্কী সরাসরি নিজেদের দফতর খুলে নিয়েছে। অর্থাৎ কংগ্রেস ভারত বিরোধী শক্তির সাথে হাত মিলিয়ে নিয়েছে।

সরকার ভারতের জনগণকে অনুরোধ করেছে তুর্কী যাত্রা থেকে দূরে থাকার জন্য। যদিও এখনও অবধি তুর্কীকে ভারতীয় নাগরিকদের সাথে কোনো অঘটন ঘটার খবর পাওয়া যায়নি। সেই দৃষ্টিকোন থেকে এটা ভারত সরকার জেনে বুঝেই তুর্কীকে চাপে ফেলার জন্য করেছে বলেই মনে করা হচ্ছে। এর আগে ভারত সরকার তুর্কীর সাথে ২.৩ বিলিয়ন ডলারের একটা চুক্তি বাতিল করে দিয়েছে। কিন্তু কংগ্রেস পার্টি এখন ভারত দেশের পার্টি হতে তুর্কিতে নিজেদের দফতর খুলে ফেলেছে। কংগ্রেস পার্টি বলেছে এটা তুর্কীর সাথে ভালো সম্পর্ক স্থাপনের জন্য।

যদিও ভারত সরকার আগে থেকেই সেখানে দূতাবাস স্থাপন করে রেখেছে সম্পর্ক ইত্যাদি দেখাশোনা করার জন্য। কিন্তু কংগ্রেস পার্টি অফিসের মাধ্যমে উভয় দেশের রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নয়নের কারণ উল্লেখ করেছে। এইভাবে কংগ্রেস পার্টি ভারতের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কংগ্রেস দল জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে তারা ইস্তাম্বুলে Overseas Congress এর অফিস খুলেছে। মোহাম্মদ ইউসুফ খান এই অফিসের দেখাশোনা করবে। মোহাম্মদ ইউসুফ খানের নেতৃত্বে কংগ্রেস পার্টি তুর্কীতে তাদের ভিত মজবুত করবে বলে দাবি কংগ্রেসের।