আন্তর্জাতিকনতুন খবর

হিন্দুত্বর জন্যই গোটা বিশ্বে বিপদ বাড়ছেঃ শাহ মেহমুদ কুরেশি, পাকিস্তানি বিদেশ মন্ত্রী

নয়া দিল্লিঃ কংগ্রেসের সাংসদ তথা প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) বিগত কিছু সময় ধরে হিন্দু ধর্ম আর হিন্দুত্বের মধ্যে তফাৎ খুঁজে দুটিকে আলাদা বলে বর্ণনা করেছেন। রাহুল গান্ধী হিন্দুত্বকে অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং হিন্দুত্বকে বিজেপির ঘৃণ্য মতাদর্শের অংশ হিসাবে বর্ণনা করেছেন।

এবার রাহুল গান্ধীর সুরে সুর মেলালেন পাকিস্তানের (Pakistan) বিদেশ মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি (Shah Mahmood Qureshi)। তিনি হিন্দুত্বের আদর্শের তুমুল সমালোচনা করেন। কুরেশি বলেন, বর্তমান সময়ে বিশ্বের নিরাপত্তার জন্য সবথেকে বড় বিপদ হল ভারত সরকারের হিন্দুত্ববাদী বিচারধারা। তিনি জানান, ভারত সরকারের এই হিন্দুত্ববাদী নীতি, আদর্শের জন্য এত বড় বিপদের সৃষ্টি হয়েছে। তিনি আরও বলেন যে পাকিস্তান একটি সক্রিয় বৈদেশিক নীতি অনুসরণ করছে যা জাতীয় আকাঙ্খা এবং বৈশ্বিক গতিশীলতার প্রতি সংবেদনশীল।

পাকিস্তানের ন্যাশনাল ডিফেন্স ইউনিভার্সিটিতে ছাত্রদের উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে কুরেশি বলেন, দ্রুত পরিবর্তনশীল আন্তর্জাতিক পরিস্থিতির দ্বারা সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় পাকিস্তানের যথেষ্ট স্থিতিস্থাপকতা এবং অভিজ্ঞতা রয়েছে। কুরেশি ‘পাকিস্তানের পররাষ্ট্র নীতি ও চ্যালেঞ্জের রূপরেখার’ বিষয়ে কথা বলছিলেন। অনেক সামরিক অফিসারও তাঁর বক্তব্য শুনতে সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যুক্ত বহু আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

কুরেশি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় স্থায়ী শান্তি নির্ভর করে জম্মু ও কাশ্মীর বিরোধের সমাধানের ওপর। তিনি আরও বলেন যে, কাশ্মীর ইস্যুতে ফলাফলের জন্য একটি অনুকূল পরিবেশ তৈরি করা ভারতের দায়িত্ব। তিনি বলেন, 5 আগস্ট, 2019-এ কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের বেআইনি পদক্ষেপ নেওয়ার পর, পাকিস্তান বিশ্বজুড়ে দৃঢ়তার সাথে সেই ইস্যু তুলেছে এবং ভারতের দ্বারা জম্মু ও কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের উপর আলোকপাত করার চেষ্টা করেছে।

Related Articles

Back to top button