Press "Enter" to skip to content

কান্নাকাটি করা পাকিস্তানি হিন্দু মহিলার ভিডিও ভাইরাল, অপহরণ করে করানো হয়েছিল ধর্মান্তকরণ

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ ইমরান খানের নতুন পাকিস্তানে সংখ্যালঘু মেয়েদের পরিস্থিতি দিনদিন ভয়াবহ হয়ে উঠছে। ধর্মান্তকরণে কুখ্যাত সিন্ধ প্রান্ত হিন্দু এবং সংখ্যালঘু মেয়েদের জন্য নরক হয়ে উঠেছে। পাকিস্তানের এই প্রান্তে সংখ্যালঘু মেয়েদের অপহরণ করে জোর করে ধর্মপরিবর্তন করিয়ে তাঁর বিয়ে দেওয়া হয়। সম্প্রতি রিনা মেঘওয়ার নামের এক হিন্দু মেয়েকে অপহরণ করে জোর করে ধর্মপরিবর্তন করার মামলা পাক সাংসদে উঠেছিল। এবার রিনার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় দুরন্ত গতিতে ভাইরালও হচ্ছে। ভাইরাল ভিডিওতে ওই মেয়েটিকে সাহায্যের জন্য আর্তনাদ করতে দেখা যাচ্ছে।

ভিডিওটি পাকিস্তানের সিন্ধ প্রান্তের বলে দাবি করা হচ্ছে। ভিডিওতে যেই মেয়েটিকে দেখা যাচ্ছে, তাঁর নাম রিনা মেঘওয়াল বলে দাবি করা হচ্ছে। ভিডিওতে রিনাকে কেঁদে কেঁদে মানুষের কাছে সাহায্যের আবেদন করতে দেখা যাচ্ছে। ভিডিওতে মেয়েটি বলছে, আমার এখানে ভালো লাগছে না, আমি বাড়ি যেতে চাই। ভিডিওতে আরও কয়েকজন মহিলারও আওয়াজ পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু ৩৬ সেকেন্ডের এই ভিডিওতে ওই অসহায় মেয়েটিকে সাহায্য করার জন্য কাউকে এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে না।

বলে দিই, রিনাকে ১৩ ফেব্রুয়ারি অপহরণ করা হয়েছিল। এরপর তাঁকে একজন বৃদ্ধের সঙ্গে জোর করে বিয়ে দেওয়া হয়েছিল। রিনার কাকা জানান, আমি অনেক অফিসারকে এই বিষয়ে অভিযোগ করেছি, কিন্তু কোনও লাভ হয়নি। ১৩ ফেব্রুয়ারি রিনাকে অপহরণ করে তাঁকে জোর করে ইসলাম কবুল করানো হয়। এরপর এক বয়স্ক ব্যক্তির সঙ্গে তাঁর বিয়ে দেওয়া হয়। রিনার পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে ঠিকই, কিন্তু পুলিশ এখনও রিনাকে খুঁজে পায়নি।