Press "Enter" to skip to content

নতুন বছরে হাহাকার পাকিস্তানে! এক ধাক্কায় গ্যাসের দাম বেড়ে দাঁড়ালো ১৮০০ টাকা

শেয়ার করুন -

নতুন বছর ২০২০ এর শুরুতেই বড়সড় ঝটকা খেলো পাকিস্তানিরা। দেশের ক্রমবর্ধমান ঋণ আর আর্থিক অবনতির কারণে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষের দাম রেকর্ড স্তরে পৌঁছে গেছে। পাকিস্তানি সরকারের তরফ থেকে জারি করা পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গ্রামীণ এলাকায় দ্রব্যমূল্য ২০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। আর এই কারণে পাকিস্তানের আম জনতার জীবন যাপন কঠিন হয়ে পড়েছে। পেট্রোল, ডিজেল, রান্নার গ্যাসের পর এবার আটার দামও আকাশ ছুয়েছে। আপনাদের জানিয়ে রাখি, পাকিস্তানে এখন রান্নার গ্যাসের দাম ১৫১৩.৬৯ টাকা থেকে বেড়ে ১৭৯১.৪৮ টাকা হয়ে গেছে।

পাকিস্তানি মিডিয়া রিপোর্টস অনুযায়ী, পাকিস্তানে ১১.৮ কেজি একটি ঘরোয়া এলপিজি সিলেন্ডারের দাম এক ঝটকায় ২৭৭.৭৯ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। এবার একটি সিলেন্ডারের দাম ১৫১৩.৬৯ টাকা থেকে বেড়ে ১৭৯১.৪৮ টাকা হয়ে গেছে। এক ঝটকায় গ্যাসের দাম এত বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে পাকিস্তানের জনতার হাল বেহাল হয়ে গেছে। পাকিস্তানের প্রতিটি মানুষই এখন এই দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে বিপর্যস্ত।

আরেকদিকে পাকিস্তানের সরকারি ভান্ডারও খালি হয়ে গেছে প্রায়, এই কারণে পাকিস্তানে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি এখন চরম সীমায় পৌঁছেছে। এছাড়াও কেরোসিনের দাম ৩ টাকা ১০ পয়সা প্রতি লিটারে বেড়েছে। আরেকদিকে, পেট্রোলের দাম ২.৬১ টাকা বেড়েছে। পাকিস্তানে এখন এক লিটার পেট্রোলের দাম ১১৬ টাকা ৬০ পয়সা।

পাকিস্তানে পেট্রোলের দাম ভারতের তুলনায় অনেক বেড়েছে। ভারতে বুধবার এক লিটার পেট্রোলের দাম ৭৫.১৪ টাকা ছিল। এছাড়াও পাকিস্তানে ডিজেলের দাম প্রতি লিটারে ৩ টাকা ১০ পয়সা বৃদ্ধি পেয়েছে। এরপর পাকিস্তানে ডিজেলের দাম ১২৭.২৬ পয়সা হয়েছে। ভারতে এক লিটার পেট্রোলের দাম ৬৭.৯৬ টাকা। পাকিস্তানে ভারতের প্রায় দ্বিগুণ টাকায় ডিজেল পাওয়া যাচ্ছে।