Press "Enter" to skip to content

CAA নিয়ে চলা বিবাদের মধ্যে পাকিস্তান থেকে আসা এক হিন্দুকে ভারতীয় নাগরিকত্ব দিলো সরকার

শেয়ার করুন -

দেশ জুড়ে আজকাল নাগরিকতা সংশোধন আইন (CAA) নিয়ে হিংসাত্মক প্রদর্শন চলছে। এই আইনকে সংবিধান বিরোধী বলে বিরোধী দল গুলো এর বিরুদ্ধে দেশ উত্তাল করছে। আর এই বিক্ষোভের মধ্যে পাকিস্তান (Pakistan) থেকে গুজরাটে আসা এক মহিলাকে ভারতের (India) নাগরিকত্ব দেওয়া হল। পাকিস্তান থেকে ভারতে আসা হাসিনা বেন দুই বছর আগে ভারতের নাগরিকতার জন্য আবেদন জানিয়েছিলেন, আর উনি এখন নাগরিকতা পেলেন।

প্রথম থেকেই ভারতে থাকা হাসিনা বেন ১৯৯৯ সালে বিয়ে করে পাকিস্তান চলে গেছিলেন। কিন্তু কিছু সময় পর ওনার স্বামীর মৃত্যু হয়, আর তিনি আবার ভারতে চলে আসেন। দুই বছর আগে তিনি ভারতের নাগরিকতার জন্য আবেদন জানিয়েছিলেন। এবার ১৮ই ডিসেম্বর ২০১৯ সালে ওনাকে ভারতীয় নাগরিকতার প্রমাণপত্র দেওয়া হয়।

গুজরাটের দ্বারকায় হাসিনা বেন ভারতীয় নাগরিকতার জন্য জেলা শাসককে চিঠি লিখেছিলেন। দ্বারকার জেলা শাসক ডঃ নরেন্দ্র কুমার হাসিনা বেনের হাতে ভারতীয় নাগরিকতার প্রমাণপত্র দেওয়া হয়।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, ভারত সরকার দ্বারা সম্প্রতি নাগরিকতা সংশোধন বিল লোকসভা এবং রাজ্য সভায় পাশ করানো হয়েছে। এরপর নাগরিকতা সংশোধন বিলে স্বাক্ষর করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের পর নাগরিকতা সংশোধন বিল আইন হয়ে যায়, এবং এটি এখন সংবিধানের একটি অংশ। বিরোধী দল অভিযোগ করে বলছে যে, এই আইন আর্টিক্যাল ১৪ এর লঙ্ঘন করে, এছাড়াও সংবিধানের আরও ধারার লঙ্ঘন করে এই আইন। বিরোধীরা অভিযোগ করেছে যে, কেন্দ্র সরকারের এই আইন দেশে সংখ্যালঘুদের প্রতি ভয় উৎপন্ন করবে।