নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

মমতা আর তৃণমূলের সাংসদদেরও কিন্তু দিল্লী আসতে হবে, সরাসরি হুমকি বিজেপির সাংসদের

নয়া দিল্লীঃ রাজ্যে ফল প্রকাশ হওয়ার পর চারিদিকে হিংসার আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। আর এরই মধ্যে বিজেপির সাংসদ প্রবেশ বর্মা তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাদের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন। প্রবেশ বর্মা বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল জেতার পর দলের গুণ্ডারা বিজেপির কর্মীদের উপর অত্যাচার করছে। শুধু তাই নয়, বিজেপির সাংসদ তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, তৃণমূলের সাংসদ, মুখ্যমন্ত্রী আর বিধায়করাও দিল্লী আসবেন কিন্তু।

পশ্চিম দিল্লী থেকে বিজেপি সাংসদ প্রবেশ সাহিব সিংহ বর্মা টুইট করে তৃণমূলকে একহাতে নিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘তৃণমূলের গুন্ডারা নির্বাচনে জেতার পর আমাদের কর্মীদের প্রাণে মারছে, আমাদের কর্মীদের বাড়িঘর ভাঙচুর করছে। মনে রাখবেন তৃণমূলের সাংসদ, মুখ্যমন্ত্রী, বিধায়কদেরও দিল্লী আসতে হবে। আমার এই কথাকে হুঁশিয়ারি হিসেবে নেবেন। নির্বাচনে হার-জিত থাকে, তবে এরকম খুনোখুনি না।”

আরেকদিকে, বনগাঁর বিজেপি সাংসদ তথা ঠাকুর বাড়ির সদস্য শান্তনু ঠাকুর এই হিংসার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। তিনি ফেসবুকে লাইভে এসে তৃণমূল এবং রাজ্যের প্রশাসনের উপর ক্ষোভ উগরে দেন। তিনি বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের এই বিশৃঙ্খলার বিরুদ্ধে এক হয়ে পথে নামারও আহ্বান করেন। শান্তনু ঠাকুর এও বলেন যে, আমরা বনগাঁতে জিতেছি তবুও আমাদের কর্মী সমর্থকদের উপর এক শ্রেণীর মানুষ অত্যাচার চালাচ্ছে।

শান্তনু ঠাকুর এই ঘটনার জন্য একটি বিশেষ সম্প্রদায়কে অভিযুক্ত করেছেন। তিনি বলেছেন বেছে বেছে হিন্দুদের বাড়িতে লুটপাট চালানো হচ্ছে, অত্যাচার চালানো হচ্ছে। শান্তনু ঠাকুর এও বলেন যে, অবিলম্বে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া হলে রাজ্যের চারিদিকে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়তে পারে। তিনি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা সহ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথের দিনে দেশজুড়ে ধরনা দেওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন।

Related Articles

Back to top button