নতুন খবরভারতবর্ষ

পাকিস্তানের মুসলিম ভারতে এসে থাকলে বিভাজনের কি দরকার ছিল? অখন্ড ভারত করে দাও: মুসলিম ব্যাক্তির ভাইরাল ভিডিও

নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশে ক্ষোভ এখনও তুঙ্গে রয়েছে। বহু জায়গায়া কট্টরপন্থীরা রাস্তায় বেরিয়ে উপদ্রব শুরু করেছে। পশ্চিমবঙ্গে লুঙ্গি বাহিনী ব্যাপক ভাঙচুর চালানোর পর উত্তরপ্রদেশে এখনও উপদ্রব অব্যাহত রয়েছে। যদিও যোগী সরকার দাঙ্গাবাজদের বিরুদ্ধে যে একশন নিয়েছে তা প্রশংসনীয়। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন যারা সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করেছে তাদের থেকে সমস্থ ক্ষতিপূরণ নেওয়া হবে। প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, CAA আইনের অন্তর্গত পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান থেকে আগত হিন্দু, বৌদ্ধ,খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে।

কিন্তু কিছুজনের দাবি CAA এর আওতায় মুসলিমদের আনা হোক। যাতে পাকিস্তান,বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান থেকে আগত মুসলিমরাও ভারতের নাগরিকত্ব পায়। একই সাথে মায়ানমার থেকে আগত রোহিঙ্গাদেরও নাগরিকত্ব দেওয়া দাবি উঠেছে। এর মধ্যেই একটা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় দারুন ভাইরাল হয়েছে। ভিডিতে এক মুসলিম ব্যাক্তি বলেছেন, যদি পাকিস্তানের লোকজন এখানে এসে থাকে তাহলে দেশের বিভাজনের কি দরকার? পাকিস্তানকে আবার হিন্দুস্তানে মিলিয়ে নেওয়া হোক। আফগানিস্তানে মুসলিম যদি ভারতে চলে আসে তাহলে তাদের আলাদা দেশ কেন? আফগানিস্তানকে ভারতে অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়া হোক।

মুসলিম ব্যাক্তিটি আরো বলেন, আমাদের মুসলিম সমাজ শিক্ষার দিক থেকে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। এই কারণে উস্কানি পেয়ে মুসলিম বাচ্চা ছেলে মেয়ে হাতে পাথর নিয়ে, অস্ত্র নিয়ে মারপিট করতে বেরিয়ে পড়ে। এতে দোষ কারোর একার নয়, এটা রাজ্যের শাসন ব্যবস্থার দোষ। মুসলিম ব্যাক্তিটি সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলার সময় এই বিবৃতি দেন। যা এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

CAA এর আওতায় মুসলিমদের আনা উচিত নয় এর সাপেক্ষে যুক্তি দিয়ে মুসলিম ব্যাক্তিটি সকলকে অবাক করেছেন। জানিয়ে দি, ভিডিওটি উত্তরপ্রদেশের (UP) বলে দাবি করা হচ্ছে। উত্তরপ্রদেশে মুসলিমদের সবথেকে বেশি উস্কানি দেওয়া হয়েছে দাঙ্গা ফ্যাসাদ করার জন্য। মূলত CAA ও NRC নিয়ে ভ্রান্তি তথ্য মানুষের মাথায় ঢুকিয়ে অশান্তি ছড়ানোর ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button