নতুন খবরভারতবর্ষ

কেরালা থেকে ব্যাবসা গুটিয়ে উত্তরপ্রদেশে উৎপাদন ইউনিট খুলল পেপসিকো! স্বাগত জানালেন যোগী আদিত্যনাথ

উত্তরপ্রদেশ রাজ্য শিক্ষা, স্বাস্থ্যের পাশাপাশি শিল্প বিকাশের ক্ষেত্রেও অনেকটাই অগ্রগতি লাভ করেছে। ওই রাজ্যে খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পকে আরও উন্নত করে তোলার লক্ষ্যে, উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বুধবার মথুরায় আলুর চিপস উৎপাদনের জন্য পেপসিকো ইন্ডিয়ার সবচেয়ে বড় ফুড প্লান্ট উদ্বোধন করতে চলেছেন। প্রথমে পেপসিকো (PEPSICO) কেরালায় প্লান্ট তৈরির উদ্যোগ নিয়েছিল কিন্তু রাজ্য সরকারের অসহযোগিতার কারণে, PEPSICO কেরালা থেকে তাদের বিনিয়োগ তুলে নিয়ে উত্তর প্রদেশকে বেছে নিয়েছে।

৮১৪ কোটি টাকা বিনিয়োগের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত, মথুরার কোসি কালান ফুডস প্ল্যান্টটিকে ভারতে পেপসিকোর উৎপাদনের জন্য সবচেয়ে বড় গ্রিনফিল্ড বিনিয়োগ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। একজন সরকারি মুখপাত্র জানিয়েছেন, এটি কোম্পানির প্রথম ‘মেক অ্যান্ড মুভ’ কারখানা, যা আলুর চিপস ব্র্যান্ডের ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণ করবে।

ফুড প্ল্যান্টগুলি দুবছরেরও কম সময়ের মধ্যে চালু করা হবে। যোগী সরকারের নীতি এবং সংস্কারের পাশাপাশি শ্রম নিয়ন্ত্রন, সময়মত অনলাইন অনুমোদন, এবং রাস্তা এবং বিদ্যুৎ, খাদ্য ও পানীয় সহ অন্যান্য উন্নত অবকাঠামোর জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন পেপসিকো কোম্পানি।

রাজ্যে কর্মসংস্থান বাড়াতে এই প্লান্ট
একদিকে উত্তরপ্রদেশে যেমন খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পকে উৎসাহিত করবে, তেমনই ওই রাজ্যে ১,৫০০-এরও বেশি মানুষ প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ কাজের সুযোগ পাবে এই সেটআপের মাধ্যমে, যোগী সরকার কমপক্ষে ৩০% মহিলা কর্মচারীদের চাকরির সুযোগ দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছেন। এ ছাড়াও, কোসি কালান প্লান্ট উত্তর প্রদেশের প্রায় পাঁচ হাজার স্থানীয় কৃষককে উপকৃত করবে কারণ PEPSICO INDIA রাজ্যের স্থানীয় উৎস থেকে বছরে ১,৫০,০০০ টন আলু কিনতে চায়।

ট্রেড ইউনিয়নগুলো মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে আন্দোলন শুরুর পর, পেপসিকো ইন্ডিয়া লিমিটেড কেরালায় তার উৎপাদন ইউনিট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। বরুণ বেভারেজেস লিমিটেড, একটি ফ্র্যাঞ্চাইজি, যা পলক্কাদের ইউনিটটি পরিচালনা করত, মার্চ থেকে লকআউটে থাকার পর মঙ্গলবার রাজ্যের শ্রম দপ্তরে বাধ্যতামূলকভাবে বন্ধের জন্য নোটিশ পাঠিয়েছে।

তবে PEPSICO একমাত্র ব্যবসায়িক জায়ান্ট নয় যে কেরেলাতে বাধার সম্মুখীন হয়েছিল। এর আগে কিটেক্স গার্মেন্টস ৩,৫০০ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রকল্প কেরালা থেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছিল।সম্প্রতি, কিটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান সাবু জ্যাকব একটি সাংবাদিক সম্মেলনে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগীর কথা বলেছেন।

ব্যবসা বান্ধব নীতি, কোভিড মহামারীর সময় সহযোগিতা এবং ইউপি -তে দক্ষ আইনশৃঙ্খলা পরিচালনায় করে মুগ্ধ হয়ে জানিয়েছেন তিনি ওই রাজ্যে বিনিয়োগ করতে ইচ্ছুক। তিনি আরও বলেন, “যেকোন বিনিয়োগকারী মানসিক শান্তি পচ্ছন্দ করেন। উত্তরপ্রদেশ ভারতের দ্বিতীয় শীর্ষ ব্যবসা-বান্ধব রাজ্য এবং অল্প সময়ে রাজ্যটি ব্যবসায়িক দিক থেকে অনেক কিছু অর্জন করেছে। আমি আশা করি, আর কয়েক বছরের মধ্যেই উত্তরপ্রদেশ এক নম্বর হতে চলেছে। ”

Related Articles

Back to top button