নতুন খবরভারতবর্ষ

পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরার দরকার নেই, যেখানে আছে সেখানেই টিকাকরণ হবেঃ প্রধানমন্ত্রী

নয়া দিল্লীঃ নির্ধারিত সময় অনুযায়ী রাত ৮ঃ৪৫ এ জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। করোনার মধ্যে দেশের পরিস্থিতি নিয়ে বক্তব্য রাখার সময় তিনি দেশে করোনায় মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। দেশের স্বাস্থ্যকর্মী, সুরক্ষা কর্মী, ডাক্তার, নার্স, অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভারদের প্রচেষ্টাকে সম্মান জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, দেশে করোনার প্রকোপ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশের ফার্মা ইন্ডাস্ট্রিগুলো বেশি পরিমাণে ভ্যাকসিন উৎপাদন করা শুরু করেছে।

তিনি জানান, জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে দেশে যত করোনার ভ্যাকসিন উৎপাদিত হত, তাঁর থেকে অনেক বেশি উৎপাদন হচ্ছে। এর পাশাপাশি হাসপাতালে বেডের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। এছাড়াও দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে কোভিড হাসপাতালা তৈরি করা হচ্ছে। তিনি জানান আজ বিশ্বের সবথেক সস্তা ভ্যাকসিন ভারতে আছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, গোটা বিশ্বের সবথেকে দ্রুত ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে ভারতে। এখনও পর্যন্ত দেশের ১২ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। দেশের করোনা যোদ্ধাদের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। ভারতে এখন যা ভ্যাকসিন তৈরি হবে, তাঁর অর্ধেক ভ্যাকসিন রাজ্য গুলোকে দেওয়া হবে। এছাড়াও আগের মতো সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। দেশের গরিব, মধ্যবিত্ত পরিবারদের আগের মতই বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। তিনি জানান, ১ লা মে থেকে গোটা দেশে ১৮ বছরের ঊর্দ্ধে সবাইকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের পরিযায়ী শ্রমিকদের যেখানে আছেন, সেখানেই থাকার আবেদন করেন। তিনি বলেন, আপনাদের কোথাও যেতে হবে না, আপনি যেখানে আছেন সেখানেই আপনাকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। তিনি জানান এই বিষয়ে আমরা রাজ্যগুলোর সঙ্গে কথা বলে নেব।

তিনি রাজ্য গুলোকে পরামর্শ দেন যে, লকডাউন থেকে বাঁচার প্রচেষ্টা করুন। লকডাউনের বদলে মাইক্রো কন্টেনমেন্ট জোনের দিকে লক্ষ্য দিন।

Related Articles

Back to top button