Press "Enter" to skip to content

সনাতন হিন্দু ধর্ম ও সংস্কৃতির প্রতি আকৃষ্ট হয়ে ভারতের নিশান্তকে বিয়ে করলেন পোল্যান্ডের ডায়ানা!

শেয়ার করুন -

ভারতবাসী ভারত (India) দেশকে একটা জীবন্ত আত্মা হিসেব দেখে। এই কারণে ভারতকে ‘মা’ বলে সম্বোধন করে ভারতের জনতা। এখন ভারত দেশকে মা বললে সেই দেশের আত্মা হলো সনাতন হিন্দু ধর্ম। বিদেশী মিডিয়া ভারতের উদারতা ও সনাতন ধর্ম সম্পর্কে এজেন্ডা চালাতে ব্যাস্ত থাকলেও বিশ্ব জুড়ে সনাতন ধর্মের প্রতি মানুষের ব্যাপক আকর্ষণ লক্ষ করা যাচ্ছে। সনাতন ধর্মের প্রতি আকর্ষণের একটা খবর আসছে উত্তরপ্রদেশের মুজাফফরনগর থেকে। খবর এই যে,পোল্যান্ডের (Poland) এক কন্যা ভারতের ছেলেকে বিয়ে করে সনাতন সংস্কৃতিকে আপন করে নিয়েছে।

Hindu marriage

পোল্যান্ডের ডায়ানা উত্তর প্রদেশের মুজাফফরনগরের চরথাল থানা এলাকার বাধী কালানের নিশান্তের সাথে বন্ধুত্ব করেছিল। তারপরে নিশান্ত এর আচরণ ও তাঁর সনাতনী সংস্কৃতের রীতিনীতির প্রতি আকর্ষিত হয়ে ডায়ানা নিশান্তকে বিয়ে করে। আসলে সনাতন সংস্কৃতির একটা বড়ো বৈশিষ্ট্য হলো এই সংস্কৃতির গর্ভ থেকে জন্ম নেওয়া মানুষ আচরণের দিক থেকে উৎকৃষ্ট মানের হয়। এই আচরণ ও চরিত্রের প্রেমে পড়ে যায় পোল্যান্ডের ডায়ানা।

ডায়ানা সনাতন সংস্কৃতিকে এতটাই পছন্দ করে বসেন যে তিনি নিশান্তকে জীবনসঙ্গী করার সিদ্ধান্ত নেন। শুধু এই নয়, ডায়ানা সনাতন হিন্দু সংস্কৃতিকে আপন করে গেরুয়া বস্ত্র উড়ে নেয়। দুজনের বিয়ে পোল্যান্ডে হয়েছিল কিন্তু এখন দুজনে ভারতে এসেছে। কৃষক অরবিন্দ মালিক এবং মেনকার ছেলে নিশান্ত গত সাত বছর ধরে নরওয়ে, নেদারল্যান্ডস এবং জার্মানিতে পড়াশোনা ও বসবাস করছিলেন। গত বছর নরওয়েতে পিএইচডি পড়ার সময় তার সহপাঠী পোল্যান্ডের বাসিন্দা ডায়ানার সাথে তার বন্ধুত্ব হয়।

বন্ধুত্ব হওয়ার পর ডায়ানা সনাতন রীতি রেওয়াজ সম্পর্কে জানতে পারে। যত জানতে থাকে ততই আগ্রহ বাড়তে থাকে ডায়নার। উনি বলেন ভারতীয় সংস্কৃতি দেখে আমি হতবাক, এত বৃহত্তর ও উদার সংস্কৃতির সাথে নিজেকে জুড়তে পেরে আমি ধন্য। ডায়ানা জানান যে তিনি সংস্কৃতি ভাষা ও হিন্দু ধর্ম সম্পর্কে জানার জন্য আরো চেষ্টা করবেন। ভারতে আসার পর দুজনকে এক অনুষ্ঠানে সম্বোধন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে ভারতীয়দের সাথে সাথে পোল্যান্ডের কিছু নাগরিকও উপস্থিত ছিলেন। আমরা India rag এর টিমের তরফ থেকে দুজনকে জানাই অভিনন্দন।