Press "Enter" to skip to content

CAA এর প্রতিবাদে নামাজের পর পুলিশকে তাড়া করলো ৩০০০ কট্টরপন্থীর ভিড়! আহত ১৯ পুলিশকর্মী, গ্রেফতার ৩২ উপদ্রবী।

শেয়ার করুন -

নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (CAA) এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর, 2019) গুজরাটের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই সময়ে, গুজরাটের আহমেদাবাদ থেকে হিংসা পূর্ন বিক্ষোভের অনেক ছবি সামনে এসেছে। দুর্বৃত্তদের ভিড়ের জনতা আহমেদাবাদের শাহ আলম এলাকায় পুলিশ সদস্যদের ঘিরে ফেলে এবং তাদের দিকে পাথর ছুঁড়তে শুরু করে। ভিডিওতে স্পষ্টভাবে দেখা যায় যে পুলিশকর্মীরা পালিয়ে গিয়ে লুকানোর চেষ্টা করছে, কিন্তু ভিড়ের দ্বারা ছোড়া পাথরে পুলিশকর্মী আহত হন। এতে প্রায় ১৯ পুলিশ সদস্য আহত হন। এই ঘটনার পর মোট 32 জনকে পুলিশ আটক করেছে।

অন্য একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, পুলিশের গাড়ির পেছনে কট্টরপন্থীদের একটি ভিড় দৌড়াচ্ছে। পুলিশের গাড়ি যেইমাত্র দ্রুত যেতে শুরু করে, কট্টরপন্থীরা পাথর ছুঁড়তে আরম্ভ করে। কাছাকাছি দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশকর্মীরা গাড়িতে প্রবেশের চেষ্টা করলেও একজন পুলিশ বাসে উঠতে না পেরে নীচে পড়ে যায়। এ সময় উপদ্রবীদের একটি ভিড় তাকে ঘিরে ফেলে এবং মারধর শুরু করে।

মানিনগর থানার এক কর্মচারী ঘটনার বিষয়ে জানিয়েছিলেন যে দরগায় বিপুল জনতা জড়ো হয় এবং পরে জনতা পুলিশ সদস্যদের উপর প্রচুর পরিমাণে পাথর মারতে থাকে। ইশানপুর থানার পরিদর্শক জেএম সোলঙ্কি জানান, দরগায় নামাজের পর দুই থেকে তিন হাজার দুর্বৃত্তের ভিড় রাস্তায় এসে পাথর ছুঁড়তে শুরু করে। জানিয়ে দি, জেএম সোলঙ্কিও এতে আহত হয়েছেন।

শাহ আলম এলাকায় সহিংস বিক্ষোভের বিষয়ে, আহমেদাবাদের পুলিশ কমিশনার আশীষ ভাটিয়া বলেছেন, “৩২ জনকে আটক করা হয়েছে। আমরা একটি এফআইআর নিবন্ধন করছি। সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে অন্যান্য দুষ্কৃতীদেরও চিহ্নিত করা হচ্ছে। এই সহিংস ঘটনায় ১৯ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ”