নতুন খবরভারতবর্ষ

আরও কড়া হল যোগী সরকার! চারদিনে গ্রেফতার PFI এর ১০৮ দাঙ্গাকারি

নাগরিকতা আইনের বিরুদ্ধে হওয়ার হিংসা নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে। উত্তর প্রদেশের মুখ্য সচিব অবনীশ অবস্থি আর ডিজিপি হিতেশ চন্দ্র অবস্থি প্রেস কনফারেন্স করে জানান যে, PFI রাজ্যে দাঙ্গার উস্কানি দিয়েছে। গত চারদিনে PFI এর ১০৮ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ওনারা জানান, চারদিনে বিশেষ অভিযান চালানো হয়েছে। প্রথমে PFI এর ২৫ পদাধিকার আর সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এবার ১০৮ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১০৮ জনের মধ্যে লহ্নউ থেকে ১৪, সীতাপুর থেকে ৩, মেরঠ থেকে ২১, গাজিয়াবাদ থেকে ৯, মুজফরনগর থেকে ৬, শামলি থেকে সাত, বিজনৌর থেকে ৪, বারাণসী থেকে ২০, কানপুর থেকে ৫, গোন্ডা থেকে ১, বাহারাইচ থেকে ১৬, হাপুর আর জৈনপুর থেকে এক জন করে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নাগরিকতা আইনের বিরুদ্ধে উত্তর প্রদেশে হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে উত্তর প্রদেশ পুলিশ PFI এর আট সদস্যকে প্রথমেই গ্রেফতা করেছিল। ওই আটজনের মধ্যে কানপুর থেকে পাঁচ আর লখনউ থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। অভিযুক্তরা হিংসা ছড়ানোর জন্য একমাস ধরে ফান্ড জোগাড় করেছিল। শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের গঙ্গা যাত্রায় বিক্ষোভ দেখানোর জন্যও লোক জোগাড় করা হচ্ছিল। কিন্তু তাঁর আগেই তাঁদের বেগমপুরবায় বৈঠক করার সময় গ্রেফতার করা হয়।

কানপুরের ইনস্পেকটর রাজীব সিং বলেন, গ্রেফতার হওয়া ব্যাক্তিদের নাম হল মোহম্মদ উমর, সৈয়দ আবদুল হাশমি, ফৈজান মুমতাজ, মোহম্মদ বাসিফ আর সরবর আলম। অভিযুক্তরা জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে, বাবুপুরবা এলাকায় হওয়া হিংসায় তাঁদের হাত ছিল। আর তাঁদের নেতৃত্বে ছিল ওয়াসিম, যাকে কিছুদিন পর লখনউ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Back to top button
Close