Press "Enter" to skip to content

মহারাষ্ট্রঃ ক্যাবিনেট বিস্তারের ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই শাসক শিবিরে ফাটল! ইস্তফা দিচ্ছে এক বিধায়ক

শেয়ার করুন -

মহারাষ্ট্রে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরের নেতৃত্বে চলা জোট সরকারে সবকিছু ঠিকঠাক চলছে না। সোমবার হওয়া প্রথম ক্যাবিনেট বিস্তারের তিন দল (শিব সেনা, এনসিপি আর কংগ্রেস) এর বাগবিতণ্ডা সবার সামনে চলে আসে। উল্লেখ্য, এনসিপির চার বিধায়ক মন্ত্রী সভায় জায়গা না পাওয়ার পরেই এই বিবাদ সবার সামনে চলে আসে। আর মন্ত্রীত্ব না পাওয়ার কারণে এনসিপি বিধায়ক প্রকাশ সোলাঙ্কি বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দেন, এমনকি তিনি রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস নেওয়ার কোথাও ঘোষণা করে দেন। আরেকদিকে কংগ্রেসেরও অনেক বিধায়ক মন্ত্রী সভায় জায়গা না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ।

পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন রাজস্ব মন্ত্রী প্রকাশ সোলাঙ্কি আজ নিজের ইস্তফাপত্র দিতে পারেন। মহারাষ্ট্রের বিড জেলার মাজলগাও আসন থেকে এনসিপি বিধায়ক প্রকাশ সোলাঙ্কি উদ্ভব ক্যাবিনেটে জায়গা না পাওয়ায় চরম ক্ষুব্ধ। সুত্র অনুযায়ী, সোলাঙ্কি আজ বিধানসভা স্পীকারের কাছে নিজের ইস্তফা পত্র দিতে পারেন। আরেকদিকে এনসিপি নেতৃত্ব ওনাকে তুষ্ট করার প্রয়াস চালিয়েই যাচ্ছে। আপনাদের জানিয়ে রাখি মহারাষ্ট্রে ক্যাবিনেট বিস্তারের পর শিব সেনা, কংগ্রেস আর এনসিপির নেতাদের মধ্যে বিক্ষোভের সুর দেখা যাচ্ছে। কংগ্রেস নেতাও সনিয়া গান্ধীর সাথে সাক্ষাৎ করে অভিযোগ জানাতে দিল্লী গেছেন।

আরেকদিকে কংগ্রেসের মন্ত্রীরা সনিয়া গান্ধী, আর প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধীর সাথে মঙ্গলবার দিল্লীতে সাক্ষাৎ করেন। মন্ত্রীদের সাথে কংগ্রেসের বরিষ্ঠ নেতা মল্লিকার্জুন খড়গে, কে.সি বেনুগোপাল রাও আর পার্টির সচিব আশিস দুবা ছিলেন।

মহারাষ্ট্রের কয়েকজন বরিষ্ঠ কংগ্রেস নেতারা জানান যে, মন্ত্রী মণ্ডল গঠনের সময় তাঁদের নজর আন্দাজ করা হয়েছে। দুইবার বিধায়ক হওয়া আমিন প্যাটেল মন্ত্রী হবে ভেবেছিলেন, কিন্তু ওনার থেকে জুনিয়র বিধায়ক আসলাম শেখ আর বর্ষা গায়েকওয়াডকে মন্ত্রীমণ্ডলে জায়গা দেওয়া হয়।