নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

তোষণের রাজনীতির বিরুদ্ধে বাংলার হিন্দুরা প্রথমবার সজাগ হয়েছে, নিজের ভোটের গুরুত্ব বুঝেছেঃ প্রশান্ত কিশোর

কলকাতাঃ চতুর্থ দফার ভোটের দিন সকাল সকাল প্রশান্ত কিশোরের অডিও টেপ ফাঁস হওয়ায় বঙ্গ রাজনীতিতে ঢেউ আছড়ে পড়ে। ওই অডিও টেপে প্রশান্ত কিশোরকে বলতে শোনা গিয়েছে যে, এবার বাংলার ক্ষমতায় বিজেপি আসছে। ৫০০ কোটি টাকার চুক্তিতে তৃণমূলের রণনীতি ঠিক করা ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের এই অডিও ক্লিপ ফাঁস হওয়ার পর কালীঘাটে অস্বস্তি শুরু হয়।

দেশের খ্যাতনামা সাংবাদিক বন্ধুদের সঙ্গে প্রশান্ত কিশোর ক্লাব হাউস রুমে বাংলার বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট নিয়ে আলোচনা করছিলেন। আর সেই আলোচনাই নেট মাধ্যমে ফাঁস হয়ে যায়। আর এই অডিও ক্লিপ ফাঁস করেন বিজেপির আইটি সেল প্রধান অমিত মালব্য। প্রশান্ত কিশোরকে ওই মিটিংয়ে বলতে শোনা যায় যে, বাংলায় বিগত ২০ বছর ধরে তোষণের রাজনীতি চলছে। তিনি এও বলেন যে, বাংলায় মুসলিমরা যাদের ভোট দিচ্ছে তাঁরাই মসনদে বসেছে।

এরপর তিনি বলেন, এই প্রথমবার বাংলার হিন্দুরা সজাগ হয়েছে। তাঁরা এখন মনে করছে যে, তাঁদের ভোটেরও গুরুত্ব রয়েছে। আর এটাই এখন বিজেপির কাছে সবথেকে বড় হাতিয়ার। তিনি এটাও বলেন যে, শুধু বাম-কংগ্রেসই না। তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও তোষণের রাজনীতিতে মত্ত। আর তিনি এও বলেন যে, সংখ্যালঘু রাজনীতির অপব্যবহার করেছে এই রাজনৈতিক দলগুলো।

বিজেপির তরফ থেকে অডিও ক্লিপ ফাঁস করার পর প্রথমবার ভাইরাল হওয়া অডিও ক্লিপ নিয়ে মুখ খোলেন ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর। তিনি একটি টুইট করে কার্যত স্বীকার করে নিয়েছেন ভিডিও ক্লিপের সত্যতা। প্রশান্ত কিশোর টুইট করে লেখেন, ‘আমি খুব গর্বিত যে, বিজেপি নিজেদের নেতাদের কথা সিরিয়াস না নিয়ে আমার কথাকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে।” প্রশান্ত কিশোর নিজের টুইটে আরও লেখেন, ‘তাঁদের উচিৎ সাহস দেখিয়ে শুধুমাত্র কিছুটা অংশ জারি না করে  সম্পূর্ণ কথোপকথনের ভিডিও জারি করা।” এরপর প্রশান্ত কিশোর লেখেন, ‘আমি এর আগেও বলেছি আর এখনও বলছি যে, বিজেপি বাংলায় ১০০ আসনের গণ্ডি পার করতে পারবে না।”

প্রশান্ত কিশোরের এই টুইট প্রমাণ করে দিচ্ছে যে, ওনার ফাঁস হওয়া অডিও/ভিডিও ক্লিপ সত্য। তবে তিনি এটাও বোঝাতে চেয়েছেন যে, বিজেপি শুধুমাত্র কিছুটা অংশ তুলে ধরেছে, পুরোটা তুলে ধরেনি। আর তিনি বিজেপিকে পুরোটা তুলে ধরার চ্যালেঞ্জও জানিয়েছেন।

 

Related Articles

Back to top button