নতুন খবরভারতবর্ষরাজনীতি

মোদীর ক্ষমতাই জানে না রাহুল, ওনাকে ক্ষমতাচ্যুত করার ধারণা ভুল! বিস্ফোরক প্রশান্ত কিশোর

পানাজিঃ ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kishor) বলেন, ভারতীয় জনতা পার্টি আগামী কয়েক দশক পর্যন্ত ভারতীয় রাজনীতির সবথেকে শক্তিশালী ক্ষমতা হিসেবে থাকবে। কিশোরের মতে, ‘বিজেপির সঙ্গে অনেক দশক পর্যন্ত লড়তে হবে।” প্রশান্ত কিশোর বলেন, ‘যেভাবে ৪০ বছর পূর্বে কংগ্রেসের হাতে সমস্ত ক্ষমতা ছিল। সেভাবেই বিজেপি হারুক আর জিতুক ক্ষমতার কেন্দ্রে তাঁরাই থাকবে। একবার যখন কোনও রাজনৈতিক দল রাষ্ট্রীয় স্তরে ৩০ শতাংশ ভোট হাসিল করে নেয়, তখন অত তাড়াতাড়ি রাজনৈতিক চিত্র বদলে যায় না।”

গোয়ার যাদুঘরে ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর বলেন, ‘এই জালে কোনওসময় ফাঁসবেন না যে, দেশের জনতা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) উপর চটে রয়েছেন আর ওনাকে ক্ষমতাচ্যুত করবে। হতে পারে দেশের জনতা নরেন্দ্র মোদীকে ক্ষমতাচ্যুত করে দেবে, কিন্তু বিজেপি ক্ষমতাচ্যুত হবে না। আগামী কয়েক দশক পর্যন্ত বিজেপির সঙ্গে লড়াই করতে হবে।”

প্রশান্ত কিশোর আরও বলেন, ‘এটা নিয়ে রাহুল গান্ধীর মনে কিছু ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে। উনি ভাবছেন আগামী দিনে তিনি নরেন্দ্র মোদীকে ক্ষমতাচ্যুত করতে পারবেন, কিন্তু এরকম কিছুই হবে না।” প্রশান্ত কিশোর বলেন, ‘যতক্ষণ না আপনি নরেন্দ্র মোদীর শক্তিকে ঠিকভাবে মূল্যায়ন করছেন, ততক্ষণ আপনি ওনাকে হারানোর জন্য কখনই কাউন্টার করতে পারবেন না। বেশীরভাগ মানুষ ওনার অসীম ক্ষমতা বুঝতে ভুল করছেন। যতক্ষণ না আপনি এটা বুঝবেন যে, কোন জিনিস ওনাকে এত জনপ্রিয় করছে? ততক্ষণ ওনার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা যাবে না।”

প্রশান্ত কিশোর বলেন, ‘আপনি যেকোনো কংগ্রেস নেতাকে গিয়ে জিজ্ঞাসা করুন, ওটা বলবে আর মাত্র কিছু দিন রয়েছে। মোদীর উপর চটে রয়েছে দেশের জনতা। ক্ষমতা বিরোধী ঢেউ আসবে, আর দেশের জনতা ওনাকে ক্ষমতাচ্যুত করবে। কিন্তু আমার মতে এরকম কিছুই হবে না।”

কিশোর বলেন, ‘ভোটার বেস অনুযায়ী, এই লড়াই এক তৃতীয়াংশ বা দুই তৃতীয়াংশের মধ্যে। শুধু এক তৃতীয়াংশ মানুষ বিজেপিকে ভোট দিচ্ছেন এবং বিজেপিকে সমর্থন করতে চাইছেন। সমস্যা হল দুই তৃতীয়াংশ ভোটার চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। তাঁরা ১০, ১৫ বা ২০ টি রাজনৈতিক দলে বিভক্ত আর সেটাই কংগ্রেসের পতনের প্রধান কারণ।” প্রশান্ত কিশোর বলেন, কংগ্রেসের সমর্থন কমে গিয়েছে। ৬৫ শতাংশ ভোটার ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছোট ছোট দলে চলে গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button