নতুন খবরভারতবর্ষরাজনীতি

জালিওয়ানাবাগে যা হয়েছে, ভালই হয়েছে! রাহুলের উল্টো সুর অমরিন্দর সিংয়ের গলায়

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ভারতের ইতিহাসের কালো অধ্যায় রূপে দায়ের জালিওয়ানাবাগ হত্যাকাণ্ড। আর এবার জালিওয়ানাবাদ স্মৃতি সৌধকে নতুন রূপে দেওয়ার কারণে কেন্দ্রের মোদী সরকারকে একহাতে নিচ্ছে কংগ্রেস এবং বাকি বিরোধীরা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শনিবার ২৮ আগস্ট জালিওয়ানাবাগের পুননির্মিত পরিসরের উদ্বোধনের পর বিরোধীরা একজোট হয়ে মোদী সরকারকে আক্রমণ করেছে।

প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। ওনার উপস্থিতিতেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অমৃতসরের জালিওয়ানাবাগ স্মারক স্থলে তৈরি করা চারটি সংগ্রহশালার উদ্বোধন করেন।

একদিকে অনেকেই সরকারের এই পদক্ষেপের প্রশংসা করছে, অন্যদিকে বিজেপি বিরোধী দলগুলি এই নিয়ে কেন্দ্র সরকারের মুণ্ডুপাত করছে। বিরোধীরা সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদী সরকারের এই কাজকে ইতিহাস বিরোধী আখ্যা দিয়ে একের পর এক পোস্ট করে চলেছে। তাঁদের দাবি, সরকার জালিওয়ানাবাগের স্মারককে নতুন রূপ দিয়ে ইতিহাসে কাটছাঁট করার প্রচেষ্টা চালিয়েছে।

কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী একটি টুইট করে এই কাজকে শহীদদের অপমান বলে আখ্যা দিয়েছেন। এই মামলায় রাহুল গান্ধী নিজেকে শহীদের ছেলে বলে লেখেন, ‘জালিওয়ানাবাগের শহীদদের এমন অপমান সেই করতে পারে যে, শহীদের মানে জানে যা। আমি একজন শহীদের ছেলে, শহীদের অপমান কোনোভাবেই সহ্য করব না। আমি এই অভদ্র ক্রুরতার বিরুদ্ধে।”

অন্যদিকে রাহুল গান্ধীর বিপরীত পথে হেঁটে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং জালিওয়ানাবাগকে নতুন করে সাজানোতে খুশি জাহির করেছেন। উনি বলেছেন, ‘আমি জানিনা কি সরানো হয়েছে, যা হয়েছে আমার কাছে বেশ ভালোই লাগছে।”

Related Articles

Back to top button