নতুন খবরভারতবর্ষ

সীমান্তে QRSAM মিসাইল মোতায়েন করল ভারত! রীতিমতো চাপে চীন

করোনা ভাইরাসের দায় নিজের কাঁধ থেকে মুছে ফেলতে চীন যে উপদ্রব শুরু করেছিল তা এখন চীনের জন্যেই বিপদজ্জনক হয়ে উঠছে। প্রথমত জিনপিং এর এক ঘনিষ্ট আর্মি অফিসার ভারতীয় সেনার উপর লুকিয়ে ঘাত লাগিয়ে আক্রমন করার নির্দেশ দেয়। যাতে ভারতের ২০ জন সৈনিক বলিদান হন, তবে ভারতীয় সেনা পাল্টা যে তান্ডব করে তাতে চীনের ৪০-৬০ জন সৈনিক মারা পড়ে।

চীন অনুমান করেছিল, ভারত চীনের ইস্যুতে ভয় পেয়ে পিছিয়ে পড়বে। এর জন্য চীন ভারতে থাকা চীন সমর্থক গ্যাংকেও কাজে লাগাচ্ছিল। এই গ্যাং মূলত চীন খুব শক্তিশালী, চীনের সেনার শক্তি অনেক বেশি এইসব ভুয়ো তথ্য ছড়িয়ে ভারতীয়দের মনোবল ভাঙার চেষ্টা করে। তবে ভারতের জাতীয়তাবাদীদের সক্রিয়তার কারণে চীনের প্রোপাগান্ডা বিফল হয়।

যার জন্য চীনের গ্লোবাল টাইমস বার বার ভারতে রাষ্ট্রবাদীদের আক্রমন করে লেখা প্ৰকাশ করে। চীনের প্রোপাগান্ডা বিফল করার পর এখন ভারত চীনকে শিক্ষা দিতে সমস্ত শক্তি লাগিয়ে দিয়েছে। এখন খবর আসছে যে ভারত সীমান্তে QRSAM মিসাইল সিস্টেম মোতায়েন করেছে।

QRSAM ডিফেন্স সিস্টেম নিমেষে চীনের ফাইটার জেটকে ধ্বংস করার ক্ষমতা রাখে। একই সাথে এই ডিফেন্স সিস্টেম অত্যন্ত দ্রুতগতিতে কাজ করার জন্য খ্যাত। QRSAM মিসাইল সম্পূর্ণ স্বদেশী। এছাড়াও ভারত ইজরায়েল থেকে নেওয়া হেরণ ড্রোন মোতায়েন করেছে। সীমান্তে ভারতীয় সেনার তিনটি ডিভিশন ও চাইনিজদের আতঙ্ক মাউন্টেন ফোর্সকেও লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি চীনকে রীতিমতো চাপে ফেলেছে।

Related Articles

Back to top button