নতুন খবরভারতবর্ষ

৯৯% মুসলিমরা আগে হিন্দু ছিল, ভগবান রাম উনাদের জন্যেও পূজনীয়: রামদেব, যোগগুরু।

অযোধ্যা মামলায় রায় আসার পরেও বিতর্ক থামার নাম নিচ্ছে না। বহুজন আদালতের রায় ও নির্মাণ নিয়ে মতামত প্রকাশ করতে।শুরু করেছে। যোগগুরু বাবা রামদেব জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ বিতর্কিত মামলায় সুপ্রিম কোর্টের সাম্প্রতিক রায়কে স্বাগত জানিয়েচেন। রামদেব বলেছেন যে যেমন ভ্যাটিকান সিটি খ্রিস্টানদের, মক্কা মুসলিমদের, তেমনিভাবে হিন্দুদের জন্য অযোধ্যায় একটি মন্দিরকে প্রধান তীর্থস্থান হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করা উচিত।

 

রামদেব বলেন যে দেশের ৯৯ শতাংশ মুসলমান ধর্মান্তরিত। তারা সকলেই প্রথমে ছিলেন তাই ভগবান রামও তাঁর দ্বারা শ্রদ্ধাশীল। বাবা রামদেব, শ্রী বৈজেশ্বর তীর্থ স্বামীজি এবং আরও অনেক নেতার স্বপ্ন দেখেছিলেন যে অযোধ্যায় একটি মহা রাম মন্দির তৈরি করা উচিত। যা এখন বাস্তবায়নের পথে এগিয়ে চলেছে।আদালত মন্দির নির্মাণের জন্য ট্রাস্ট গঠন করার নির্দেশ দিয়েছে।

সেই ট্রাস্টে হিন্দু নেতা, প্রবীণ হিন্দু সাধু,আ স্বামীজি ও সন্ন্যাসীদের রাখতে বলা হয়েছে। রামদেব বাবা বলেন, অযোধ্যা হিন্দু ধর্মের বৈদিক ঐতিহ্যের স্মারক হয়ে উঠতে হবে। ভগবান রাম কেবল হিন্দুদের পূর্বপুরুষই নন, মুসলমানদের পূর্বপুরুষও। হিন্দু ও মুসলমান উভয়েরই উচিত রাম মন্দির এবং মসজিদ নির্মাণে একে অপরকে সহায়তা করা। যোগগুরু অযোধ্যায় মসজিদটি নির্মাণের জন্য পাঁচ একর জমি সরবরাহকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেন, হিন্দুদের মসজিদটি নির্মাণে সহযোগিতা করা উচিত।

তিনি আরো বলেন, অযোধ্যায় রাম মন্দিরের নির্মাণটি রাম নবমীর দিন থেকেই শুরু হওয়া উচিত এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন্দিরটি নির্মাণের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা উচিত। এর আগে এক টিভি চ্যানেলে এসে উনি সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন। রামদেব বাবা বলেছিলেন, আসাউদ্দিন ওয়েসী দেশের বিশ্বাসঘাতক। আসাউদ্দিন ওয়েসী দাঙ্গা লাগিয়ে দেশকে ভাগ করতে চাইছে বলে অভিযোগ উঠিয়ে ছিলেন রামদেব বাবা।

Back to top button
Close