Press "Enter" to skip to content

রাজ্য থেকে টাটাকে তাড়িয়েছিলেন দিদি, এবার সেই টাটাই সাহাজ্যের হাত বাড়িয়ে বাংলায় অক্সিজেন দিচ্ছে

শেয়ার করুন -

কলকাতাঃ করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশে এখন সবথেকে বড় সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে অক্সিজেনের অভাব। আর এই অভাব পূরণ করতে টাটা গোষ্ঠী মাঠে নেমে পড়েছে। টাটা তরল অক্সিজেন সরবরাহ করার জন্য ২৪টি ক্রায়োজেনিক কন্টেনার্স আমদানি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। টাটার এই সিদ্ধান্তের ফলে দেশে অক্সিজেনের সমস্যা অনেকটাই মিটবে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

টাটা গোষ্ঠী নিজেদের টুইটার অ্যাকাউন্টে লেখে, ‘ভারতের মানুষের কাছে প্রধানমন্ত্রীর আবেদন প্রশংসনীয়। আমরা কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য যথাসম্ভব প্রচেষ্টা করব। অক্সিজেন সঙ্কট কম করার জন্য আর স্বাস্থ্যের পরিকাঠামো আরও উন্নত করার জন্য এটি একটি ক্ষুদ্র প্রয়াস মাত্র।” আরেকটি টুইট করে টাটা কোম্পানি লেখে, টাটা গোষ্ঠী তরল অক্সিজেনের সরবরাহের জন্য ২৪টি ক্রায়োজেনিক কন্টেনার আমদানি করছে।

মঙ্গলবার টাটা কোম্পানি একটি ট্যুইটে লেখে, অক্সিজেনের অভাব মেটাতে আর ভারতের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে মজবুত করার জন্য পূর্ণ প্রয়াস করছি আমরা। বলে রাখি, একদিন আগেই টাটা স্টিল ঘোষণা করেছিল যে, তাঁরা রাজ্য সরকার আর হাসপাতাল গুলোকে প্রতিদিন ২০০-৩০০ টন তরল মেডিক্যাল অক্সিজেন পাঠাবে।

টাটার এই ঘোষণার পর থেকে আজ সকালে টুইটারে #ThisIsTata ট্রেন্ড করছে। উল্লেখ্য, এই হ্যাশট্যাগের সরাসরি সম্পর্ক দেশের মহান শিল্পপতি রতন টাটার সঙ্গে যুক্ত। দেশের হাসপাতাল গুলোতে রোজ বিনামূল্যে অক্সিজেন সরবরাহের ঘোষণা করার পর নেটিজেনরা রতন টাটাকে সম্মান জানাতে টুইটারে এই হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করছে।

আরেকদিকে, অনেকেই আবার টাটার এই সিদ্ধান্তের পর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করছেন। তাঁরা একটি ছবিতে লিখছেন, ‘২০০৮ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টাটাকে বাংলা থেকে তাড়িয়েছিলেন। ২০২১ সালে সেই টাটা বাংলার হাসপাতালে অক্সিজেন সরবরাহ করছে।”