Press "Enter" to skip to content

আইন বাতিলের ক্ষমতা রাজ্যের নেই, কেরলের মুখ্যমন্ত্রীকে চরম হুঁশিয়ারি রবিশঙ্কর প্রসাদের

শেয়ার করুন -

কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ (Ravi Shankar Prasad) কেরল বিধানসভায় নাগরিকতা সংশোধন আইনের বিরুদ্ধে পেশ করা প্রস্তাব নিয়ে মঙ্গলবার প্রেস কনফারেন্সে করলেন। আইন মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ বিরোধীদের উপর হামলা করে বলেন, নাগরিকতা আইন পেশ করার অধিকার শুধু সংসদের আছে, বিধানসভার নেই।

রবিশঙ্কর প্রসাদ নাগরিকতা আইনের সমর্থন করে বলেন, এই আইনের ফলে প্রতিবেশী দেশের সংখ্যালঘুরা অনেক সাহায্য পাবেন। উনি বলেন, ২০০৩ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এই আইনের সমর্থন করেছিলেন। এই আইনের ফলে ভারতের কোন নাগরিকের কোন ক্ষতি হবেনা।

উনি জানান, ‘নিজ স্বার্থ আর রাজনীতি করার জন্য অনেক মানুষ আর রাজনৈতিক দল গুলো অপ্রচার চালাচ্ছে। আমি আবারও কেরলের মুখ্যমন্ত্রীকে বলতে চাই যে, প্রয়োজনে আইনি পরামর্শ নিন।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন রাজ্যের বিধানসভায় নাগরিকতা সংশোধন আইনের বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাব পেশ করেন। উনি নাগরিকতা সংশোধন আইন রদ করার দাবি করেন। এরপর উনি বিধানসভায় এই প্রস্তাব পাশও করিয়ে নেন। প্রস্তাব পেশ করে বিজয়ন বলেন, এই আইন ধর্মনিরপেক্ষতার বিরুদ্ধে। এই আইনের ফলে দেশের নাগরিকদের সাথে ধর্মের ভিত্তিতে বৈষম্য করা হচ্ছে। উনি বলেন, ‘এই আইন সংবিধানের বিচারধারার বিরুদ্ধে।”