নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

করোনার কারণে বন্ধ স্কুল, আর এরমধ্যেই স্কুল পড়ুয়াদের নিয়ে তৃণমূলের মিছিল! উঠল বিতর্কের ঝড়

আলিপুরদুয়ারঃ গতকাল বৃহস্পতিবার আলিপুরদুয়ার ফালাকাটার দেওগাঁওয়ে তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) মিছিলে হাঁটতে দেখা যায় স্কুল পড়ুয়াদের। ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসতেই চারিদিকে উঠেছে নিন্দার ঝড়। জানিয়ে দিই, দেওগাঁওয়ে তৃণমূলের তরফ থেকে একটি প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়েছিল। ওই ফুটবল ম্যাচের প্রধান উদ্দেশ্য ছিল রাজ্য সরকারের জনমুখী প্রকল্প গুলোকে সবার সামনে তুলে ধরা। তৃণমূলের যুব সংগঠন এবং মাদার তৃণমূল মিলে এই প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করেছিল।

তৃণমূলের এই আয়োজন উপলক্ষ্যে একটি মিছিলেরও আয়োজন করা হয়েছিল। সেই মিছিলেই জোড়া ফুল আঁকা তৃণমূলের পতাকা নিয়ে হাঁটতে দেখা যায় স্কুল পড়ুয়াদের। মিছিলে হাঁটার জন্য স্কুল পড়ুয়াদের স্কুল ইউনিফর্ম পরা বাধ্যতামূলক ছিল। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই উঠছে নানান প্রশ্ন। একদিকে করোনার সংক্রমণ থেকে পড়ুয়াদের রক্ষা করতে স্কুল, কলেজ সমস্ত কিছু বন্ধ রাখা হয়েছে। আরেকদিকে সেই পড়ুয়াদেরই রাজনৈতিক কারণে মিছিলে হাঁটানো হচ্ছে! প্রশ্ন তো উঠবেই।

দেওগাঁও স্কুলের প্রধান শিক্ষক দীপক বর্মণ এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে বলেন, গোটা দেশ সমেত গোটা রাজ্য এখন ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। সবাইকে কড়া ভাবে কোভিড নিয়ম পালন করার নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। রাজ্যে ইতিমধ্যে গোষ্ঠী সংক্রমণও শুরু হয়ে গিয়েছে। স্কুল, কলেজ সমস্ত কিছুই বন্ধ। সেই হিসেবে কোনও মিছিলে পড়ুয়াদের যোগ দেওয়া নিয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেওয়া হচ্ছে না। তবে এরকম পরিস্থিতি এসব না করলেই ভালো।

ঘটনার পর প্রতিক্রিয়া আসে তৃণমূলের পক্ষ থেকেও। এই ঘটনার প্রসঙ্গে তৃণমূলের দেওগাঁও এর নেতা জুলফিকার আলী বলেন, যেসমস্ত পড়ুয়ারা আমাদের মিছিলে হেঁটে ছিল, তাঁদের সবারই অভিভাবক তৃণমূলের কর্মী-সমর্থক। এরা সবাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কন্যাশ্রী সমেত বিভিন্ন প্রকল্পে উপকৃত হয়েছে। আর এই কারণে তাঁরা মিছিলে যোগ দিয়েছে। তিনি এও জানান যে, ওই মিছিলে যোগ দেওয়া বেশীরভাগ পড়ুয়ার বয়স ১৮ পেরিয়ে গিয়েছে।

Back to top button
Close