Press "Enter" to skip to content

“আজ বেঁচে আছি, কাল নাও থাকতে পারি”- বলছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বহু বিজেপি কর্মী

শেয়ার করুন -

পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে যে ধরনের খবর সমানে আসছে তা ১৯৪৬ সালের স্মৃতিকে উস্কে দিচ্ছে। মমতার পার্টির রাজনৈতিক জয়লাভের পর থেকে হিন্দুদের উপর ব্যাপক অত্যাচার শুরু হয়েছে। খুন থেকে শুরু করে ধর্ষণের বিভিন্ন খবর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সামনে আসছে। যদিও সরকারি বিজ্ঞাপনের লোভও নিজেদের ধর্মনিরপেক্ষ বলা সংবাদমাধ্যমগুলি এই ধরনের অশান্তিগুলি নিয়ে একেবারে চুপ।

একই সাথে বুদ্ধিজীবী বর্গ এই ঘটনাগুলিকে নিয়ে কোনো কথা বলতে রাজি নয়। এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে মানুষজন রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করার দাবি জানিয়েছেন। যদিও রাজ্যপাল বা কেন্দ্র সরকারের তরফে তেমনকোনো পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে মনে হচ্ছে না।

সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজ্যজুড়ে অশান্তির বহু ছবি, ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে। এমনি এক ভিডিওতে দক্ষিণ ২৪ পরগনার এক মহিলা বিজেপি সমর্থক জানিয়েছেন যে কিভাবে তার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, কট্টরপন্থীরা তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে মা কালীর মূর্তি অবধি ভেঙে দিয়েছেন। মহিলা বলেন, ওরা আবার সন্ধেয় আক্রমন করবে। জানি না আমরা সকালের মুখ দেখতে পাবো না।

তবে শুধু এই মহিলা নন, বিজেপির অনেক কর্মী India Rag কে জানিয়েছে যে তারা আজ বেঁচে আছে কিন্তু কালকে নাও বেঁচে থাকতে পারে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার মুসলিম বহুল এলাকা ক্যানিং, বেদবেড়িয়া ইত্যাদি এলকায় লুঙ্গিবাহিনী খুন, ধর্ষণ চালাচ্ছে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে।