নতুন খবর

স্বল্প বিনিয়োগে বাড়িতে বসে শুরু করুন এই ব্যবসা, আয় হবে কোটি কোটি টাকা

নয়া দিল্লিঃ বর্তমান প্রজন্মের একাংশই এখন ব্যবসার দিকে ঝুঁকছে। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন ব্যবসায়িক পদ্ধতিও। পাশাপাশি, করোনার মত ভয়াবহ মহামারী শুরু হওয়ার পর চাকরিও হারিয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। এমতাবস্থায়, নতুন চাকরি খোঁজার পরিবর্তে বাড়িতে বসেই শুরু করা যায় লাভজনক ব্যবসা। বর্তমান প্রতিবেদনে আমরা এইরকমই একটি ব্যবসা সম্পর্কে আলোচনা করবো।

প্রথমেই জানিয়ে রাখি, এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে আপনাকে খুব বেশি টাকা খরচ করতে হবে না। অর্থাৎ, এখানে বিনিয়োগের পরিমান খুবই কম। অথচ এই ব্যবসা থেকেই একটা সময়ে প্রতি মাসে কোটি টাকা পর্যন্ত আয় করা সম্ভব!

যে ব্যবসাটি সম্পর্কে আমরা আলোকপাত করছি সেটা হল অনলাইন হোর্ডিং ব্যবসা। ডিজিটালাইজেশনের এই যুগে অনলাইন হোর্ডিংয়ের ব্যবসা আপনার জন্য খুব লাভজনক হতে পারে। খুব সহজেই এই ব্যবসা শুরু করে ভালো অঙ্কের টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

একটি মিডিয়া হাউসের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, এইরকমই একটি বিজ্ঞাপনের স্টার্টআপ কোম্পানি হল গো হোর্ডিংস। Gohoardings.com-এর প্রতিষ্ঠাতা দীপ্তি অবস্থি শর্মা এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন যে, তিনি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই অনলাইন হোর্ডিং ব্যবসা থেকে ভালো অর্থ উপার্জন শুরু করেছেন।

২০১৬ সালে, যখন দীপ্তির বয়স ছিল মাত্র ২৭ বছর, তখন তিনি এই ব্যবসা শুরু করেছিলেন। প্রথম দিকে তাঁর কাছে তেমন টাকা না থাকায় মাত্র ৫০ হাজার টাকা দিয়ে এই ব্যবসার কাজ তিনি শুরু করেন। যদিও, কিছুদিনের মধ্যেই ভালো আয় হতে থাকে দীপ্তির। আর এখন এই ব্যবসা থেকে মাসে প্রায় ১ কোটি টাকা পর্যন্ত আয় করছেন তিনি। খুব অল্প সময়েই তাঁর ব্যবসা সফলতা লাভ করেছে।

গ্রাহকরা GoHoardings.com-এ লগইন করে যেখানে হোর্ডিংটি লাগাতে চান সেই লোকেশন শেয়ার করে দেন। এরপরে কোম্পানি থেকে একটি মেল ​​আসে যা সাইট এবং অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত করে। পাশাপাশি, লোকেশন স্থির করে একটি আইডি এবং পাসওয়ার্ডও পাঠানো হয়। প্রকাশিত খবর অনুসারে, এই সংস্থাটি এক মাসের জন্য একটি হোর্ডিং স্থাপনের জন্য ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত চার্জ নেয়।

তবে, এই ব্যবসা শুরু করতে গেলে কিছু পদ্ধতিগত উপায় অবলম্বন করতে হয়। আপনি অনলাইন মার্কেটিং এবং প্রযুক্তির সাহায্যে এই কাজটি শুরু করতে পারেন। এর জন্য, আপনাকে শুধুমাত্র আপনার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে।

এরপর অনলাইন মার্কেটিংয়ের সাহায্যে আপনাকে প্রচারও করতে হবে। পাশাপাশি, গ্রাহকের কাছে ঠিক কী ধরনের বিজ্ঞাপন প্রয়োজন সেদিকেও নজর রাখতে হবে। গ্রাহকদের চাহিদা পূরণ করতে পারলেই ধীরে ধীরে আপনার ব্যবসা সফলতা পাবে। বর্তমান সময়ে, বেশিরভাগ মানুষ অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিতে পছন্দ করেন। এমতাবস্থায়, এই ধরণের একটি কোম্পানি তাঁদেরকে সাহায্য করতে পারে।

Related Articles

Back to top button