Press "Enter" to skip to content

ইসলামিক দেশ সৌদি আরবের স্কুলে পড়ানো হবে রামায়ন-মহাভারত আর হিন্দু ধর্ম, শেখানো হবে যোগ আর আয়ুর্বেদ

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ সৌদি আরব পড়ুয়াদের নতুন পাঠ্যক্রমে রামায়ণ র মহাভারতকে যুক্ত করেছে। এবার স্কুলে পড়ুয়াদের অন্য বিষয়ের সঙ্গে রামায়ণ আর মহাভারতেরও শিক্ষা দেওয়া হবে। এছাড়াও সৌদি আরবের পড়ুয়াদের গীতা জ্ঞান এবং ভারতীয় সংস্কৃতি সম্বন্ধ্যে পাঠ পড়ানো হবে। সৌদি আরবের সরকার দ্বারা জারি নতুন পাঠ্যক্রমে রামায়ণ, মহাভারতের সঙ্গে হিন্দু ধর্ম নিয়েও শিক্ষা দেওয়া হবে। সৌদি আরবের প্রিন্স মহম্মদ বিন সালমান দেশের জন্য নতুন শিক্ষা প্রণালী জারি করেছেন, সেখানে রামায়ণ, মহাভারতের পাশাপাশি হিন্দু সভ্যতাকেও পাঠ্যক্রমে যুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়াও সৌদি আরবের নতুন পাঠ্যক্রমে যোগ, আয়ুর্বেদকেও যুক্ত করা হয়েছে। সৌদি সরকার জানিয়েছে যে, তাঁদের লক্ষ্য হল দেশের আগামী প্রজন্ম আলাদা আলাদা সংস্কৃতি সম্বন্ধ্যে জানুক আর রামায়ণ-মহাভারত, ভারতীয় সংস্কৃতি, যোগ এবং আয়ুর্বেদ পড়ে নানান তথ্য হাসিল করুক। উল্লেখ্য, সৌদি আরবের শিক্ষায় বিস্তার করে সৌদি প্রিন্স মহম্মদ বিন সালমান ভিসন-২০৩০ জারি করেছে, সেখানে ভারতীয় সংস্কৃতি আর রামায়ণ, মহাভারতকে প্রধান স্থান দেওয়া হয়েছে।

সৌদি আরব সরকার দ্বারা জারি করা ভিসন ২০৩০-এ ইংরেজি ভাষাকে দেশের জন্য অনিবার্য করেছে। এখন থেকে সৌদির পড়ুয়াদের ইংরেজি ভাষাতে শিক্ষা দেওয়া হবে। সৌদির এক টুইটার ইউজার দেশের নতুন পাঠ্যক্রম নিয়ে কয়েকটি ছবি টুইট করেছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, সৌদি আরবের নতুন ভিসন-২০৩০, নতুন সিলেবার আর পাঠ্যক্রম এমন ভবিষ্যৎ বানাতে সাহাজ্য করবে যা সমাবেশি, উদার আর সহিষ্ণু হবে।

তিনি আরও লেখেন, ‘স্কুল পরীক্ষার সিলেবাসে হিন্দু ধর্ম, বৌদ্ধ ধর্ম, রামায়ণ, মহাভারত, কর্ম, ধর্ম আর ইতিহাসকে যুক্ত করা হয়েছে। এই পাঠ্যক্রম পড়ার সময় ছাত্ররা বেশ আনন্দিত হবে এবং তাঁরা আলাদা আলাদা ধর্ম নিয়ে তথ্যও হাসিল করতে পারবে এবং আগামী প্রজন্ম সহিষ্ণু হবে।”