নতুন খবরভারতবর্ষ

আমরা হিন্দুত্বের পথেই দেশের নবজাগরণ করবো, স্বামী বিবেকানন্দের বিষয়ে সমস্থ ইতিহাস বইতে লেখা উচিত: সুব্রামানিয়ান স্বামী।

নিজের বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য প্রায় খবরের শিরোনামে থাকা বিজেপি সাংসদ সুব্রামানিয়ান স্বামী (Subramanian Swamy) আরো একবার হিন্দুত্ব প্রসঙ্গে বিবৃতি দিয়েছেন। সুব্রামানিয়ানস্বামী বলেছেন দেশের জাগরণ হিন্দুত্বের পথেই হবে। স্বামী বিবেকানন্দের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ব্যাঙ্গালুরুতে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন সুব্রামানিয়ান স্বামী। সেই অনুষ্ঠানে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হওয়ার সময় সুব্রামানিয়ান স্বামী বলেন সময় এসেছে যে স্বামী বিবেকানন্দের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে মানুষকে জানানো। বিজেপি সাংসদ বলেন, ‘যখন বিদেশী আক্রমনের কারণে ভারতের হিন্দুরা তাদের গৌরবময় ইতিহাস ভুলে গিয়ে নিজেদের পিছিয়ে পড়া মনে করতো। সেই সময় স্বামী বিবেকানন্দ বিশ্বকে বুঝিয়ে ছিলেন কেন হিন্দু হওয়া গর্বের বিষয়।’

সুব্রামানিয়ান স্বামী বলেন, স্বামী বিবেকানন্দ শিকাগো শহরে যে বক্তব্য রেখেছিলেন তা দুর্দান্ত। আজও সমাজ স্বামী বিবেকানন্দ থেকে অনুপ্রেরণা পায়। সময় এসেছে আবার স্বামী বিবেকানন্দ এর ইতিহাসকে পূর্ণ লিখন করার। আমাদের ছেলে মেয়েরা ভুলে যাচ্ছে স্বামী বিবেকানন্দ, অরবিন্দ ঘোষ কি বলে গেছেন। তাই আবার ইতিহাস পূর্ন লিখন করতে হবে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, সুব্রামানিয়ান স্বামী হিন্দুত্ববাদ ও রাষ্ট্রবাদের বিষয়ে বিবৃতি দেওয়ার কারণে বরাবর শিরোনামে থাকেন। কিছুদিন আগেই সুব্রামানিয়ান স্বামী বলেছিলেন ভিক্টরিয়া মেমোরিয়াল এর নাম পরিবর্তন করে সেটাকে ঝাঁসির রানী লক্ষীবাই এর নামে রাখা উচিত। যেহেতু ভিক্টরিয়ার নেতৃত্বে ভারতের সম্পত্তি লুটপাট হয়েছে তাই তার নামে ভারতে মেমোরিয়াল রাখা উচিত নয় বলে মনে করেন বিজেপি সাংসদ।

এর আগেও উনি JNU এর নাম নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর নামে রাখার দাবি করেছিলেন। JNU তে বার বার হিংসার ঘটনা সামনে আসার দরুন, স্বামী JNU এর নাম জওহরলাল নেহেরুর পরিবর্তে নেতাজি সুভাষচন্দ্রের নামে রাখার কথা বলেছিলেন। JNU তে স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তি ভাঙা প্রসঙ্গে এ কথা বলেছিলেন সুব্রামানিয়ান স্বামী। আর এখন উনি স্বামী বিবেকানন্দকে দেশের ছাত্র সমাজের সামনে নতুন করে তুলে ধরার প্রসঙ্গ টেনেছেন।

Back to top button
Close