নতুন খবরভারতবর্ষ

২০২৪ এর নির্বাচনে মাহিকে রাজনীতির মাঠে ব্যাটিং করতে ডাক দিলেন সুব্রহ্মনম স্বামী

নয়া দিল্লীঃ ভারতের (India) প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি (MS Dhoni) আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছে। সন্ন্যাস নেওয়ার পর ধোনির ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেক গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। ধনি আপাতত আইপিএল এর প্রস্তুতিতে মন দিয়েছেন। কিন্তু এর মধ্যে জল্পনা বেড়েছে যে, ধোনি রাজনীতির পিচে নিজের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে পারেন। যদিও এখনো এই নিয়ে ধোনির তরফ থেকে কোন বয়ান আসেনি। উনি প্রতিবারের মতো এবারেও এই নিয়ে মুখ বন্ধ রেখেছেন।

এই স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পর দেশে সর্বাধিক চর্চায় ছিলেন ধোনি। ওনার সন্ন্যাস নেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আবেগঘন চিঠি লিখে ওনাকে শুভেচ্ছাও জানিয়েছেন। ধোনির সাথে কেন্দ্রে থেকে বিজেপির ঘনিষ্ঠতা খুব একটা লোকানো কথা নয়। এর আগেও বিজেপির নেতারা ধোনির সাথে প্রায়শই দেখা করতেন। কিন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর চিঠির পর এবার কি ধোনি রাজনীতির দিকে পা বাড়াবেন? এই প্রশ্নের উত্তরে রাচি থেকে দিল্লি পর্যন্ত রাজনৈতিক পারদ চড়েছে।

বিজেপির বরিষ্ঠ নেতা তথা রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মনম স্বামী (Subramanian Swamy) ধোনিকে রাজনীতিতে নামার প্রস্তাবও দিয়েছেন। স্বামী এও বলেছেন যে, ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে ধোনির রাজনীতির ময়দানে নামা উচিৎ। স্বামী বলেন, ক্রিকেটের ময়দানে সবরকম বাধার সাথে ওনার লড়াই আর ওনার দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার দক্ষতা এবার সার্বজনীন জীবনেও দরকার।

আগামী দিনে ধোনি রাজনীতির পিচে নামছে সেটা নিয়ে লাগাতার গুঞ্জন বেড়েই চলেছে। আর ওনার গৃহ রাজ্য ঝাড়খণ্ডের সমস্ত রাজনৈতিক দল ওনাকে স্বাগত জানানোর জন্য একেবারে প্রস্তুত। যদিও সন্ন্যাসের পর রাজনীতির ময়দানে নামার জন্য ধোনিকে সর্বপ্রথম প্রস্তাব বিজেপি দিয়েছিল। রাঁচি থেকে বিজেপির সাংসদ সঞ্জয় সেঠ বলেছিলেন যে, ধোনি চাইলে উনি রাঁচিতে ফেরত এলেই ওনার সাথে কথা বলব। যদিও, সবকিছু মাহির উপরেই নির্ভর করছে। আরেকদিকে, ঝাড়খণ্ড কংগ্রেসের কার্যকারী সভাপতি রাজেশ ঠাকুরও দলে মাহিকে স্বাগত জানানোর জন্য প্রস্তুত।

২০১৮ সালে তৎকালীন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ ‘সম্পর্ক ফর সমর্থন” অভিযানে মহেন্দ্র সিং ধোনির সাথে সাক্ষাৎ করেছিলেন। তখন থেকেই গুঞ্জন উঠছিল যে, ধোনি ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে রাঁচি থেকে দাঁড়াবেন। কিন্তু সেটি গুজব হিসেবে প্রমাণিত হয়েছিল।

Back to top button
Close